ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনের আরও একটি ভিডিও প্রকাশ

ভারতীয় বিমানের পাইলট অভিনন্দনকে ছেড়ে দেয়ার আগে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। শুক্রবার তাকে ভারতের হাতে সমর্পণ করে পাকিস্তানি রেঞ্জার্সরা। সীমান্ত পাড়ি দেয়ার আগে তার একটি বিবৃতি ভিডিও করেন পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ। যে কারণে তাকে হস্তান্তরে বিলম্ব করাও হয়েছে।

ভিডিওতে ভারতীয় এই উইং কমান্ডার বলেন, তিনি একটি লক্ষ্যবস্তু খুঁজতে সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করেছিলেন। কিন্তু গুলিতে তার বিমান ভূপাতিত করা হয়েছে।

৩৫ বছর বয়সী এই পাইলট বলেন, উত্তেজিত জনতার হাত থেকে পাকিস্তানি সেনারা তাকে রক্ষা করেছেন। তারা খুবই পেশাদার ও তাদের আচরণে আমি অভিভূত।

পাকিস্তানের কারাগারে ৬০ ঘণ্টা বন্দি থাকার পর ভারতে ফিরলেন দেশটির বিমান বাহিনীর পাইলট অভিনন্দন । দেশে ফিরে তার প্রথম কথা ছিল, নিজ দেশে ফিরতে পেরে ভালো লেগেছে।

তাকে যখন পাকিস্তানি রেঞ্জার্সরা ভারতের হাতে সমর্পণ করছিল, তখন তার পরনে ছিল নেভি ব্লু রঙের ব্লেজার, সাদা শার্ট ও ধূসর ট্রাউজার। আত্তারি ওয়াগা সীমান্ত অতিক্রম করার সময় তার দুই ঠোঁটে ছিল হাসির ছটা।

তাকে হস্তান্তরের মধ্যে দিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার পরমাণু শক্তিধর প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে চলমান উত্তেজনা কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শুক্রবার রাতে অভিনন্দন ফিরে আসার পরপর তাকে স্বাগত জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

টুইটারে লেখা এক বার্তায় তিনি বলেন, ওয়েলকাম হোম উইং কমান্ডার অভিনন্দন! তোমার দৃষ্টান্তস্থাপনকারী সাহসিকতায় জাতি গর্বিত। আমাদের সশস্ত্র বাহিনী ১৩০ কোটি ভারতবাসীর অনুপ্রেরণা। বন্দে মাতরম!

বিমান বাহিনীর এই পাইলটকে স্বাগত জানিয়েছেন ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতারাও।

অভিনন্দন দেশে ফেরায় ভারতজুড়ে উৎসবের আমেজ চলছে। বিমান বাহিনীর এই পাইলটকে সত্যিকার হিরো হিসেবে আখ্যায়িত করে টুইট করেছেন ভারতের ক্রীড়া ও অভিনয় জগতের তারকারা।

বিবিসির দক্ষিণ এশিয়া প্রতিনিধি রজীনী বৈদ্যনাথ মনে করছেন, পাকিস্তানের এই পদক্ষেপের মধ্য দিয়ে দুই দেশ যুদ্ধের দুয়ার থেকে ফিরছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, অভিনন্দনকে ফিরিয়ে দিতে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ শুক্রবার সকালে ইসলামাবাদ থেকে সড়কপথে তাকে লাহোরে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর একটি গাড়িতে করে বিকালে তাকে নেওয়া হয় ওয়াগা সীমান্তে।