মেয়র বললেন এক মাস, আর শিল্পমন্ত্রী বললেন ছয়!

চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর রাজধানীর পুরান ঢাকা থেকে সব ধরণের কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণ নিয়ে দুই ধরনের তথ্য দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন ও ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন।

আজ সোমবার(২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে নগর ভবনে এক জরুরি সভা শেষে পুরান ঢাকা থেকে আগামী এক মাসের মধ্যে সব কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণ করা হবে বলে ঘোষণা দেন মেয়র। তবে বিকেলে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ছয় মাসের মধ্যে দাহ্য ও রাসায়নিক দ্রব্যের গোডাউন সরিয়ে দেয়া হবে।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) থেকে কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণের কাজ শুরু হবে উল্লেখ করে সাঈদ খোকন বলেন, গোডাউন অপরাসরণের জন্য দুই স্তরের টাক্স ফোর্স গঠন করা হবে। ১ম স্তরে থাকবে সেবা সংস্থাগুলোর প্রধানসহ অন্যান্য উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা। তারা এ কার্যক্রমবিষয়ক পরিকল্পনা, নির্দেশনা এবং বাস্তবায়নের কাজ করবেন। আর দ্বিতীয় স্তরের সদস্যরা অন গ্রাউন্ডে থেকে কাজ করবেন।

মেয়রের ওই জরুরি সভায় পুলিশের মহাপরিদর্শক আইজিপি মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহাম্মেদ খান, রাজউক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আবদুর রহমান, ওয়সার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন এ খান, স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী সেলিম, তিতাস গ্যাসের এমডি মোস্তফা কামাল, পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক সোহরাব আলী, বিস্ফোরক অধিদফতরের প্রধান বিস্ফোরক পরিদর্শক শামসুল আলম, ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহম্মাদ ফেরদৌস খান, ডিপিসির এমডি বিকাশ দেওয়ানসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতিনিধি এবং পুরান ঢাকার কেমিক্যাল ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বিকেলে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাপরবর্তী করণীয় নির্ধারণে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সংস্থা ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। বৈঠকে শিল্পপ্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদারসহ শিল্পসচিব ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সংস্থা ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রী বলেন, আমরা পুরান ঢাকার সমস্যা সমাধানে পথ খুঁজছি। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে আমরা জানতে পেরেছি রাজধানী থেকে রাসায়নিক দ্রব্যের গোডাউন সরানো ছাড়া কোনো উপায় নেই।

তিনি আরও বলেন, আবাসিক এলাকায় দাহ্য ও রাসায়নিকদ্রব্য থাকতে দেয়া যাবে না। তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এটি সরানোর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে পুরান ঢাকা থেকে দাহ্য ও রাসায়নিক দ্রব্যের গোডাউন সরিয়ে দেয়া হবে। এ ক্ষেত্রে প্রচলিত নিয়মের কোনো তোয়াক্কা করা হবে না।

প্রসঙ্গত, গত ২০ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) রাতে চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৬৭ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৯ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।