‘ভিডিওটা আমি ব্লক করেছি কারণ উপর থেকে থ্রেট দেয়া হচ্ছে’

ইউটিউবার হিসেবে অল্প সময়ের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলেন সালমান মুক্তাদির। সম্প্রতি তার ‘অভদ্র প্রেম’র মিউজিক ভিডিও আপলোড করার পরই ভক্ত ও সমালোচকদের ‘তীর্যক’ মন্তব্য শুনেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা ওই ভিডিও আপলোডের পর তার চ্যানেল আনসাবস্ক্রাইব করারও ডাক দিয়েছেন। তবে এখন আর সেই ভিডিও নেই সালমানের ইউটিউব চ্যানেলে।

‘ভিডিওটা আমি ব্লক করেছি কারণ উপর থেকে প্রেসার আসছে, থ্রেট দেয়া হচ্ছে। অবশ্যই পাওয়ারফুল মানুষের সঙ্গে তো আমি ফাইট করবো না। এমন যদি হত লিগ্যাল যদি কোনো অ্যাকশন হত, তাহলে এত কিছু হয়তো হত না। কিন্তু পাবলিকলি একজন মিনিস্টার আমার নাম নিয়ে করছে এটা খুব অবাক করা বিষয় ছিল আমার জন্য। আমার কাছে অনেক খারাপ লাগছে বিষয়টা। যেহেতু বাংলাদেশের জন্য এটা অ্যাডাল্ট কন্টেন্ট তাই, এটা বাংলাদেশে দেখা যাবে না।’

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) এসব কথা বলেন জনপ্রিয় ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির। এর আগে সালমান মুক্তাদিরের অবস্থান জানতে চেয়ে সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।  

ইউটিউব কন্টেন্ট বানিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের মধ্যে জনপ্রিয়তা পাওয়া সালমান মুক্তাদির ‘অভদ্র প্রেম’র মিউজিক ভিডিও আপলোড করার পরই নিজের ভক্ত ও সমালোচকদের ‘তীর্যক’ মন্তব্য শুনেছেন। ওই ভিডিও আপলোডের পর তার চ্যানেল আনসাবস্ক্রাইব করারও ডাক দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা। তবে এখন আর সেই ভিডিও নেই সালমানের ইউটিউব চ্যানেলে। পরে ভিডিওটি সরিয়ে ফেলেন তিনি।

ভিডিও সরানোর ব্যাপারে সালমান বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে এই গানটি ব্লক করে রাখা হয়েছে। এই গানটি এখানকার ভিউয়ার্সরা নিতে পারছেন না বলে, আমি নিজেই ব্লক করে দিয়েছি। বাংলাদেশের বাইরের দর্শকরা দেখতে পারছেন গানটি।’

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে সালমান মুক্তাদির তার ইউটিউব চ্যানেলে ‘অভদ্র প্রেম’ টাইটেলে একটি বিতকির্ত ভিডিও টিজার প্রকাশ করেন। ওই ভিডিও নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন সালমান মুক্তাদির। এরপর তার ইউটিউব চ্যানেলকে আনলাইক করে দেয়ার হিড়িকে মেতে ওঠেন নেট জনতা। তবে এখন আর সেই ভিডিও নেই সালমানের ইউটিউব চ্যানেলে।