ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের সময় বাড়ল একদিন

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের সময় বাড়ল একদিন। আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও একদিন বাড়িয়ে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন গাজীপুরের জেলা প্রশাসক দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ূন।

রবিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ৮টার দিকে তিনি এ কথা জানান। রাত ৯টার পর এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে সংবাদ সম্মেলন করেন জেলা প্রশাসন।

মাওলানা সাদপন্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক একদিন সময় বাড়িয়ে আগামীকাল মোনাজাত আয়োজনের অনুমতি প্রদান করেন।

১৭-১৮ ফেব্রুয়ারি দু’দিন ইজতেমা হওয়ার কথা থাকলেও বৃষ্টিসহ বিভিন্ন কারণে মোনাজাত একদিন পেছানো হয়েছে বলে জানান তাবলিগ সংশ্লিষ্টরা। তারা জানান, রবিবার সকালে শিলাবৃষ্টির কারণে ইজতেমা কার্যক্রম শুরু করতে দেরি হয়। বিভিন্ন জেলা থেকে সাথীরা ময়দানে প্রবেশ করেছেন জোহরের পর। তাই মঙ্গলবার সকালে আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে দিনভর বৃষ্টির কারণে ব্যাপক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে ইজতেমায় অংশ নেওয়া মুসল্লিদের। ভোররাত থেকে কনকনে ঠাণ্ডা বাতাস ও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ায় ইজতেমা ময়দানে আগত মুসল্লিরা পড়েন চরম দুর্ভোগে। বিশেষ করে মানুষের চাপাচাপি এবং বৃষ্টি ও বাতাসের কারণে বয়স্ক মুসল্লিদের ভোগান্তি বেশি হয়েছে। এ সময় অনেককে তাদের সঙ্গে আনা প্রয়োজনীয় বস্তু পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের বিশ্ব ইজতেমার পর তাবলিগ জামাতের দুপক্ষ আলাদাভাবে বিশ্ব ইজতেমার তারিখ ঘোষণা করে। নিজামুদ্দীন মারকাজপন্থী মাওলানা সাদের অনুসারীরা ১১, ১২, ও ১৩ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করেন। এর বিরোধিতা করে জানুয়ারির ১৮, ১৯ ও ২০ ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করে মাওলানা জুবায়ের অনুসারীরা।

এ নিয়ে সারা বছরই উত্তেজনা থাকে। গত ১ ডিসেম্বর টঙ্গী ইজতেমা ময়দানে এ নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষও হয়। সংঘর্ষে দুজন নিহত ও শতাধিক আহত হন।

গত ২৪ জানুয়ারি ধর্ম মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত তাবলিগের দুপক্ষের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বিশ্ব ইজতেমার তারিখ ১৫ থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি চূড়ান্ত করেন।

নানান নাটকীয়তার পর অবশেষে আলাদাভাবে ইজতেমায় অংশ নেন তাবলিগের বিবদমান দু’পক্ষ।