চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১০ আগস্ট পবিত্র হজ

আগামী ১০ আগস্ট-২০১৯, ৯ জিলহজ ১৪৪০ হিজরিতে পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। তবে এটি সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করছে সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে। আজ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব এস এম মনিরুজ্জামান সাক্ষরিত সিনিয়র ইনফরমেশন অফিসার মোহাম্মদ আনওয়ার হোসাইন কর্তৃক গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানা যায়।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন মুসল্লি বাংলাদেশ থেকে হজে যাবেন।

এদিকে ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-২০১৯’ এবং ‘হজ প্যাকেজ-২০১৯’ এর খসড়া অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য জানান।

অনুমোদন পাওয়া ‘হজ প্যাকেজ-২০১৯’ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বছর সরকারিভাবে ৭ হাজার ১৯৮ জন ও বেসরকারিভাবে ১ লাখ ২০ হাজার জন হজ করতে পারবেন।

সরকারিভাবে দু’টি প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি জানান, প্যাকেজ-১ এ খরচ ৪ লাখ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা ও প্যাকেজ-২ খরচ হবে ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। বেসরকারিভাবে সর্বনিম্ন খরচ নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ।

গত বছর প্যাকেজ-১ এ ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা ও প্যাকেজ-২ এ ৩ লাখ ১৯ হাজার ৩৫৫ টাকা নেওয়া হয়েছিল। সেই হিসেবে সরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার প্যাকেজ-১ এ ২০ হাজার ৫৭১ টাকা ও প্যাকেজ-২ এ ২৪ হাজার ৬৪৫ টাকা বেশি খরচ পড়ছে।

বিমান ভাড়া প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বছর বিমান ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে  ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা। গত বছর বিমান ভাড়া ছিল ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৯১ টাকা ।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এ বছরের ১০ আগস্ট হজ হবে। যারা ২০১৯ সালে হজ করবেন তাদের মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের (এমআরপি) মেয়াদ থাকতে হবে ২০২০ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।