ওনার কথার জবাব দেয়ার ইচ্ছা আমার নেইঃ ওবায়দুল কাদের

শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ওনার (রিজভীর) কথার জবাব দেয়ার ইচ্ছা আমার নেই- পাগলে কিনা বলে, ছাগলে কিনা খায়।

‘ওবায়দুল কাদের এখন স্বেচ্ছায় বিএনপির উপদেষ্টা হতে চলেছেন, খামোখা আওয়ামী লীগে থেকে তার লাভ কী’- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এখন স্বেচ্ছায় বিএনপির উপদেষ্টা হতে চলেছেন। খামোখা আওয়ামী লীগে থেকে তার লাভ কী? বরং ওবায়দুল কাদেরকে বিএনপিতে যোগ দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক প্রতিনিয়ত বিএনপিকে উপদেশ দিচ্ছেন। সভা, সমিতি, মঞ্চ, গণমাধ্যম ও ব্রিফিংয়ে বিএনপির কী করা উচিত, বিএনপির পরিণতি কী হবে, বিএনপি নির্বাচন ভীতিতে ভুগছে, বিএনপি সংসদে যোগ দেবে ইত্যাদি নানা কথার ‘খই ফোটাচ্ছেন’ প্রতিদিন।

তিনি বলেন, সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী হিসেবে ওবায়দুল কাদের ‘শালীনতা’, ‘ভব্যতার গুণমান’ বিবেচনা না করে বিএনপির বিরুদ্ধে ক্রমাগত উপদেশের ভাঙা টেপরেকর্ড বাজিয়েই চলেছেন।

এর জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, পাগলে কিনা বলে, ছাগলে কিনা খায়। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সরকারের কোনো হাত নেই। দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাবন্দি। তার জেলে থাকার সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।

তিনি বলেন, আইনিভাবে বা আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে না পারা বিএনপির দায়। খালেদা জিয়ার জেলে থাকা নিয়ে আওয়ামী লীগ সরকারকে দোষারোপ করা একেবারে অসৎ।

ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান মিয়া, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপদফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য আনোয়ার হোসেন।