শেখ হাসিনাকে নেদারল্যান্ডস-জর্দান-তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী উষ্ণ অভিনন্দন

একাদশ জাতিয় নির্বাচনে জয় লাভ করে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চতুর্থবারের মতো দায়িত্ব গ্রহণ করায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাত্তে, জর্দানের প্রধানমন্ত্রী ড. ওমর সাল রাজ্জাজ ও তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইউসেফ চাহেদ আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া পারস্পরিক সহযোগিতারও আশ্বাস দেন তারা।

জর্দানের প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী ড. ওমর সাল রাজ্জাজ তার বার্তায় বলেন, ‘সংসদীয় নির্বাচনে আপনার সাফল্য এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী পুনর্নির্বাচিত হওয়া উপলক্ষে আপনাকে আমার সর্বাত্মক আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।’

তিনি প্রধানমন্ত্রী ও নতুন সরকারের সাফল্য কামনা করে বলেন, ‘আমি আমাদের দু’দেশের মধ্যকার সহযোগিতা এবং দু’দেশের জনগণের মধ্যে বিনিময় বাড়াতে আপনার সঙ্গে ঘনিষ্টভাবে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি।’

নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাত্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পাঠানো তার অভিনন্দন বার্তায় বলেন, ‘আপনার নতুন সরকারের মেয়াদের সূচনায় আপনার সৌভাগ্য কামনা করছি। রাত্তে আশা প্রকাশ করেন যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নতুন সরকার আইনের শাসন, মানবাধিকার এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতার প্রতি পূর্ণভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ থাকবে, যা শক্তিশালী গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইউসেফ চাহেদ তার বার্তায় বলেন, ‘তিউনিসিয়ার সরকার এবং আমার ব্যক্তিগতভাবে পক্ষ থেকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী পুনর্নির্বাচিত হওয়ায় আপনাকে অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে উষ্ণ অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই।’

তিনি প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য, সুখ এবং বর্তমান মিশনে সাফল্য এবং তার বিজ্ঞ নেতৃত্বে বাংলাদেশের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দু’দেশের অভিন্ন স্বার্থ ও আশা-আকাঙ্ক্ষার অনুকূলে বন্ধুপ্রতিম দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্বের সম্পর্ক ও সহযোগিতা আরও উন্নয়নে অব্যাহত প্রচেষ্টার আশ্বাস দেন।

এর আগে বুধবার (৩০ জানুয়ারি) আজারবাইজানের প্রধানমন্ত্রী নভরুজ মাম্মাদোভ প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। অভিনন্দন বার্তায় আজারবাইজান প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, পারস্পরিক আস্থা ও সহযোগিতার ভিত্তিতে বাংলাদেশ ও আজারবাইজানের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে।