প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে আত্মগোপনে থেকে অপহরণ মামলা!

আড়াই মাস আত্মগোপনে থাকার পর অপহরণ সংকান্ত ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ভিকটিম উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা জেলা। গত ২৮ জানুয়ারী (সোমবার) মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মোঃ মনির হোসেন পিবিআই চট্রগ্রাম মেট্রোর সহযোগিতায় চট্রগ্রাম জেলার বাকুলিয়া থানা এলাকার চাকতাই ভেড়া মার্কেট বস্তিতে অভিযান পরিচালনা করে আত্মগোপনে থাকা ভিকটিম লতিফ মাতবরকে কে উদ্ধার করেন। উদ্ধারকৃত ভিকটিম লতিফ মাতবর, শরীয়তপুর জেলার জাজিরা থানার, ওকন উদ্দিন মুন্সীকান্দি গ্রামের মকবুল মাতবরের ছেলে।

ভিকটিমের স্ত্রী পারুল বেগমের অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ১৭ নভেম্বর মামলার ভিকটিম বাড়ি থেকে বের হয়ে বাসায় না ফিরলে খোজাখোজি করে ভিকটিমের স্ত্রী প্রথমে কেরানীগঞ্জ র‍্যাব-১১ যোগাযোগ করেন এবং পরবর্তীতিতে কেরানীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে তার স্বামীর কোন সন্ধান না পেয়ে বিজ্ঞ আদালতে ৪ জনকে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা করেন (মামলা নং-২৬, তারিখ- ১৫/১২/২০১৮, ধারা- ৩৬৪/৩৬৫/৩৪ দঃ বিঃ)। বিজ্ঞ আদালত কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশকে মামলাটি রেকর্ড করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা জেলা কে তদন্তের নির্দেশ দেয়।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা জেলার পুলিশ পরিদর্শক মোঃ মনির হোসেন জানান, তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে জানতে পারি ভিকটিম ঘটনার পর থেকে চট্রগ্রাম জেলার বাকুলিয়া থানা এলাকার ভেড়া মার্কেট বস্তিতে আত্মগোপন করে আছে। মুলত মামলার এজাহার নামীয় আসামীদের সাথে টাকা পয়সার দেনা পাওনা বিষয়কে কেন্দ্র করে ভিকটিম নিজে আত্মগোপনে গিয়ে অপহরণ নাটক তৈরি করেছে বলেও জানান তিনি। ঘটনার বিষয়ে ভিকটিম লতিফ মাতবর বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে।

 

তানজীন মাহমুদ তনু, নিজস্ব প্রতিনিধি