ছাত্রের কাছে নিজের বুকখোলা ছবি পাঠিয়ে চাকরি হারালেন শিক্ষিকা

মাত্র ১৭ বছর বয়সী এক ছাত্রের কাছে নিজের টপলেস বা বুকখোলা ছবি পাঠালেন গণিতের এক শিক্ষিকা (২২)। বিষয়টি ফাঁস হওয়ার পর তাকে চাকরি হারাতে হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ডাকোটার বেইলুলাহ হাই স্কুলে। ওই স্কুলের গণিতের শিক্ষিকা কেলসি শমিডট (২২)।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ১৭ বছর বয়সী ওই ছাত্রকে নিজের বুকখোলা ছবি পাঠিয়েছেন। এ জন্য তাকে বাধ্য করা হয়েছে পদত্যাগ করতে। শুধু যে তিনি বুকখোলা ছবি পাঠিয়েছেন নিজের ছাত্রকে তা-ই নয়, পাশাপাশি তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন গ্রুপে খেলা যায় নগ্নতা বিষয়ক এমন একটি গেমে।

ওই ছাত্রকে তিনি যেসব ছবি পাঠিয়েছেন তাতে তার শরীরের উপরের অংশ সামান্য চুল দিয়ে ঢাকা। আরেকটি ছবিতে তাকে দেখা যায় নগ্ন পায়ে। তাতে লেখা ‘গেট এ গ্রুপ অ্যান্ড প্লে ন্যাকেড হাইড অ্যান্ড সিক’।

বিষয়টি গত বছর পুলিশের কাছে জানায় ওই ছাত্র। তবে বিলম্বে খবরটি প্রচার করেছে ডিকিনসন প্রেস। এতে বলা হয়েছে, কম্পিউটার ও অন্যান্য উপায় অবলম্বন করে অপরাধ করেছেন ওই শিক্ষিকা। এ জন্য তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। চলছে মামলা।

তার আইনজীবী এর আগের একটি শুনানিতে বলেছেন, দুর্ভাগ্যজনক হলো এটা সবার জন্য একটি অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি। শিক্ষিকা শমিডটের ফেসবুক পেজ অনুযায়ি তিনি সেইন্ট মেরি ইউনিভার্সিটির একজন গ্রাজুয়েট। এটি সান ফ্রান্সিসকোতে অবস্থিত। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে সে বিষয়ে তার স্কুল কোনো মন্তব্য করে নি। অন্যদিকে আইনগত কারণে ওই ছাত্রের নাম প্রকাশ করা হয় নি। অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে আগামী মাসে আবার আদালতে তোলার কথা রয়েছে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here