প্রধানমন্ত্রীর নিমন্ত্রণকে প্রত্যাখ্যান করেছে ঐক্যফ্রন্ট-সিপিবি

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন-উত্তর শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোট নেতাদের গণভবনে চা-চক্রের নিমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরই মধ্যে চিঠি দিয়ে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তবে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই নিমন্ত্রণকে প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

শনিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আমন্ত্রণপত্রটি গণফোরাম অফিসে পাঠানো হয়েছে। সেখানে লেখা আছে- ‘আগামী ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/২০ মাঘ, ১৪২৫ বিকাল ০৩:৩০ টায় গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় ও চা-চক্রে আপনাকে সাদর আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি।’

এ বিষয়ে ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ভোট ডাকাতির নির্বাচনে বিজয়ীকে শুভেচ্ছা জানাতে কেনো যাবো? নির্বাচন বাতিলের এজেন্ডা থাকলে সংলাপে যাবো, না হলে যাবো না। এটাই ঐক্যফ্রন্ট ও বিএনপির সিদ্ধান্ত।

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, চা-চক্রে যাওয়ার সুযোগ নেই। এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত। কয়েকদিন আগেইতো পিঠা খেয়ে এলাম। আপাতত চা চক্রে যাওয়ার ইচ্ছে নেই।

প্রধানমন্ত্রীর নিমন্ত্রণের চিঠিপ্রাপ্ত বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল্লাহ আল ক্বাফী ওরফে ক্বাফী রতন জানান, সেখানে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। এই ‘ভুয়া’ নির্বাচনকে স্বাগত জানাতে যাব না। তবে আজ বাম জোটের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৮৮ আসনে জয় পায় আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট। এ নির্বাচনে মাত্র আটটি আসনে জয় পায় ঐক্যফ্রন্ট।