দীর্ঘদিন পর নির্বাচনের সুবাতাস বইছে ফরিদপুরের মধুখালীতে

দীর্ঘদিন পর নির্বাচনের সু-বাতাস বইছে ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নে। বর্তমান চেয়ারম্যানের একটি রিটের কারণে অত্র ইউনিয়নে দীর্ঘদিন নির্বাচনী শূণ্যতার সৃষ্টি হয়। অবশেষে সেই জটিলতার নিরসন হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সচিবের ২২ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রি. তারিখের এক স্মারক আদেশের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে নির্বাচনী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়। এই প্রেক্ষিতে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রি. ইউপি নির্বাচনের দিন ধার্য্য করা হয়েছে।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে দেখা যায়, বর্তমান চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রয়েছেন। ৫ বছরের জন্য ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেও এক রিটের মাধ্যমে তিনি পরবর্তী নির্বাচন প্রক্রিয়াটি বন্ধ রাখেন। ফলে সাধারণ জনগণসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের জনপ্রতিনিধিরা এমনকি তার নিজের দল আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দও তার উপর ক্ষুদ্ধ ছিলেন। যার বহিঃপ্রকাশ ঘটে গতকাল অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগের প্রার্থী নির্বাচনী প্যানেলে।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের গোপন ভোটাভুটিতে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম খাঁন বিপুল ভোটের ব্যবধানে বর্তমান চেয়ারম্যানকে পরাজিত করেন। সেখানে দেখা যায় জেলা কার্যালয়ে প্রেরণকৃত তালিকায় শফিকুল ইসলাম খান প্রথম, হাবিবুর রহমান মোল্যা দ্বিতীয় এবং আতিকুর রহমান তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছেন।

গোপন ভোট পর্বে উপজেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল হক বকু, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আলীউজ্জামান খোকন, মোঃ শহিদুল ইসলাম মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ওহিদুজ্জামান বাবলু, তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শাহ ফারুক, সহ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজা প্রমুখ।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি