মিল শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন সহ সকল প্রকার সভা সমাবেশ স্থগিত!

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ মোবারকগঞ্জ চিনিকল সহ চিনি শিল্পের আওতাধীন দেশের সকল মিলের শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন সহ সকল প্রকার সভা সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে। গত ২০ ডিসেম্বর শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের এক চিঠিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ-সংক্রান্ত বিষয়ে গত সোমবার ১৪ টি চিনিকলের মধ্যে ১০ টি চিনিকলের শ্রমিক নেতৃবৃন্দগন বাংলাদেশ চিনিকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের ঢাকাস্থ হেড অফিসে মিটিং করেছে। তারা নির্বাচন করা বিষয়ে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিয়ে শ্রম প্রতিমন্ত্রি ও শ্রম অধিদপ্তরের সাথে বৈঠকে করবেন বলে জানা গেছে।

চিনিকল সুত্রে জানা গেছে, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের শ্রম অধিদপ্তরের মহা পরিচালক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে দেশের সকল চিনিকলের শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন ও সভা সমাবেশ স্থগিত রাখার নির্দ্দেশ দিয়েছে।

ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, বর্তমানে দেশের সকল মিলে ২০১৮-১৯ মৌসুমের আখ মাড়াই কার্ষক্রম চলছে। এরিমধ্যে চিনিকল শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের নির্বাচন করা হলে মিলের মাড়াই ও চিনি উৎপাদন কার্ষক্রম ব্যাহত হতে পারে। মিলের স্বার্থে চিনি উৎপাদন কার্ষ্যক্রম অব্যহত রাখা প্রয়োজন। তাই সকল চিনিকল সমূহে আখ মাড়াই চলাকালীন সময়ে রেজিষ্টার্ডকৃত ট্রেড ইউনিয়ন গুলোর নির্বাচন সাময়িক স্থগিত রাখতে হবে। এ প্রেক্ষিতেই শ্রম অধিদপ্তর থেকে সকল মিলে কর্মরত কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকদের সকল প্রকার সভা, সমাবেশ আয়োজনে বিরত থেকে মিলের স্ব স্ব দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দিয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর মিলগুলির মাড়াই মৌসুম চলাকালীন সময়ে সিবিএ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। সে হিসাবে এবার চলতি ২০১৮-১৯ উৎপাদন মৌসুমে দেশের ১৪ টি চিনিকলের মধ্যে ১২ টি চিনিকলের সিবিএ নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা। মিলের মৌসুমী শ্রমিক কর্মচারীরা প্রতি বছর মাড়ায় ও উৎপাদন মৌসুম চলাকালীন সময় যোগদান করে কর্মরত থাকে। একারণে শ্রমিক ইউনিয়ন গুলোর সংবিধান অনুযায়ী উৎপাদন মৌসুম শুরু হলেই নির্বাচন হয়ে থাকে। কিন্তু এবছর উৎপাদন মৌসুমে শ্রম মন্ত্রনালয় কর্তৃক নির্বাচন ও সভা সমাবেশ স্থগিত করায় চিনিকল গুলোর সিবিএ নির্বাচন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ চিনিকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি ও মোবারকগঞ্জ চিনিকল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আতিয়ার রহমান জানান, শ্রম মন্ত্রনালয় থেকে নির্বাচন সাময়িক বন্ধ রাখার একটি নির্দ্দেশনা পেয়েছেন। এ বিষয়টি নিয়ে গত সোমবার ১০ টি চিনিকলের শ্রমিক নেতৃবৃন্দগন বাংলাদেশ চিনিকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের ঢাকাস্থ হেড অফিসে মিটিং করেছে। এবং মিটিংয়ে নির্বাচন করা প্রসংঙ্গে তাদের সিদ্ধান্তগুলি নিয়ে শ্রম প্রতিমন্ত্রি ও শ্রম অধিদপ্তরের সাথে বৈঠক শেষেই পরবর্তী কর্মসূচি দিবেন বলে জানা গেছে।

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি