সব আইন কর্মকর্তা হাইব্রিডদের পদত্যাগ করতে হবে

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর মিলনায়তনে রোববার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, যোগ্য ও ত্যাগীদের নিয়োগ দিতে সব আইন কর্মকর্তাকে পদত্যাগ করতে বলার পাশাপাশি হাইব্রিডদের বাদ দেয়া হবে। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘অল্প দিনের মধ্যে সব আইন কর্মকর্তাকে (অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল থেকে শুরু করে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল, পিপি, এপিপি, জিপি, এজিপি) পদত্যাগ করতে বলা হবে। এরপর যারা যোগ্য ও ত্যাগী তাদের নিয়োগ দেয়া হবে। হাইব্রিডদের বাদ দেয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল বানিয়েছেন। দেশে গণতন্ত্রকে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছেন। বিচারহীনতার সংস্কৃতি দূর করেছেন। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় আমরা থাকব দৃঢ় ও অবিচল। একজন সাংবাদিক প্রশ্ন করার পর ড. কামাল তাকে খামোশ বলেছিলেন। আমরা খামোশ রাজনীতি চাই না।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৫ এর পর দীর্ঘ ২১ বছর দেশে গণতন্ত্র ছিল না। আমরা চাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সুপ্রতিষ্ঠিত গণতন্ত্র। আমাদের শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। এর প্রথম পদক্ষেপ হবে দেশের সব (৬০টি) বারে জয়লাভ করা।’

তিনি বলেন, ‘এজন্য আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আপনারা দেশের সব বারে আওয়ামী লীগকে জিতিয়ে আনেন প্রধানমন্ত্রী আপনাদেরকে যে স্বীকৃতি দিয়েছেন তার কৃতজ্ঞতা দেখান (আইনজীবী) আপনারা।’

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ূনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রেলপথ বিষয়কমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ. ম. রেজাউল করিম, শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি, অ্যাডভোকেট সরওয়ার জাহান বাদশাহ্ এমপি, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপি।