ম্যাগি নুডলসে সিসার উপস্থিতির অভিযোগ স্বীকার করেন নেসলে

গত বছর ম্যাগিতে প্রচুর পরিমাণে সিসা ও মনোসোডিয়াম গ্লুটামেট রয়েছে বলে প্রমাণিত হওয়ার পর বাজার থেকে ম্যাগির যাবতীয় পণ্য তুলে নিতে বাধ্য হয়েছিল নেসলে। ম্যাগি নুডলসে সিসার উপস্থিতি রয়েছে বলে স্বীকার করেছে সুইজারল্যান্ড ভিত্তিক বহুজাতিক খাদ্য ও পানীয় এই কোম্পানি। নেসলের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলার শুনানির সময় বৃহস্পতিবার ভারতের সুপ্রিম কোর্টে কোম্পানিটির এক আইনজীবী নুডলসে সিসার উপস্থিতির অভিযোগ স্বীকার করেন।

মামলার শুনানিতে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে কোম্পানির আইনজীবী স্বীকার করে বলেন, নেসলের ২ মিনিটের জনপ্রিয় নুডলসে সিসা রয়েছে।

নেসলে ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে ভারতের ন্যাশনাল কনজিউমার ডিসপুটস রিড্রেসাল কমিশনে (এনসিডিআরসি) একটি মামলা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার দেশটির শীর্ষ আদালতে তোলা হয় সরকারি এই মামলা। অনৈতিক ব্যবসা, ভুল লেবেলিং ও ভুল বিজ্ঞাপনের অভিযোগে এ মামলায় নেসলের কাছে ৬৪০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়।

নেসলের আইনজীবীকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি প্রশ্ন করেন, কেন তিনি সিসাযুক্ত নুডলস খাবেন? জবাবে আইনজীবী বলেন, সিসা থাকে পারমিসিবল লিমিটের মধ্যে। বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানায়, মাইসুরুর সেন্ট্রাল ফুড টেকনোলজিক্যাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটে ম্যাগির নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে শুনানি চলবে।

২০১৫ সালে এনসিডিআরসিতে নেসলে ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিল দেশটির ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রণালয়। ম্যাগি নুডলস স্বাস্থ্যকর দাবি করে নেসলে ক্রেতাদের ভুলপথে চালিত করেছে বলে অভিযোগ করা হয়। নেসলে অভিযোগকে চ্যালেঞ্জ করলে সেই মামলায় স্থগিতাদেশ দেন সুপ্রিম কোর্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here