ঢাকা-১০ আসনে তাপসকে সমর্থন দিয়ে সরে দাঁড়ালেন জাপার হেলাল

আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে উত্তেজনা যেন বেড়েই চলেছে সবার। দেশ জুড়ে প্রার্থীদের ব্যানার-পোস্টারের ছড়াছড়ি। এরমধ্যে রাজধানীর ঢাকা-১০ আসনে প্রচার-প্রচারণায় সর্বাধিক এগিয়ে আছেন সরকার দলীয় প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস। তাপসকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী মো. হেলাল উদ্দিন। আজ শনিবার তিনি এ ঘোষণা দেন।

নির্বাচনের প্রচারণা শুরুর আগে ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপি নেতা আবদুল মান্নানকে এ আসনের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবা হলেও প্রচার-প্রচারণায় সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে ছিলেন তিনি। বরং তার তুলনায় অন্যান্য প্রার্থীর (হাতাপাখা নিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. আ. আউয়াল আম প্রতীকে, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির কে এম শামসুল আলম বাঘ প্রতীকে, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) বাহারানে সুলতান বাহার এবং লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির হেলাল উদ্দিনের প্রচারণা কমবেশি চোখে পড়েছে।

তবে পরবর্তীতে তাপসকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন হেলাল উদ্দিন। ফলে এ আসনে এখন মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হবে নৌকার প্রার্থী বর্তমান এমপি ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ও ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপির আবদুল মান্নানের মধ্যে।

এদিকে ঢাকা-১৭ আসনে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা ছিল জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদেরর। কিন্ত এ আসন থেকে তিনি নিজেকে সরিয়ে নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রর্থী আকবর হোসেন পাঠান (চিত্রনায়ক ফারুক) কে সমর্থন দিয়েছেন। সিঙ্গাপুরে ‘উন্নত চিকিৎসা’ শেষে দেশে ফিরে গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন এই ঘোষণা দেন তিনি।

উল্লেখ্য, আগামীকাল রোববার (৩০ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ২৯৯টি আসনে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের টানা ভোটগ্রহণ চলবে। এক প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোটগ্রহণ পিছিয়ে ২৭ জানুয়ারি নির্ধারণ করা হয়েছে।