সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে বাসা ছাড়তে হয়েছে রাজধানীর ব্যাচেলরদের

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তার খাতিরে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে বাসা ছাড়তে হবে রাজধানীর ব্যাচেলরদের। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত আসা যাবে না ব্যাচেলর বা মেস বাসায়। বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর বাড্ডা, ক্ষিলখেত, নিকুঞ্জ, মণিপুরি পাড়া ও মিরপুর এলাকায় বসবাসরত বেশ কয়েকজন ব্যাচেলর পুলিশের বরাতে বাড়িওয়ালার কাছ থেকে ফ্ল্যাট ছাড়ার নির্দেশনা পেয়েছেন। বিষয়টি স্বীকার করেছে পুলিশও।

মেস আকারে থাকা আবাসিক ভবনের পাশাপাশি বিভিন্ন হোস্টেলেও পুলিশের পক্ষ থেকে এমন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান বিভিন্ন হোস্টেলে থাকা ছাত্র-ছাত্রীরা। মাত্র কয়েকঘণ্টার মধ্যে বাসা ছাড়া নিয়ে বিপাকে রাজধানীর ব্যাচেলররা।

নির্দেশনা পাওয়ার পর বাসা ছাড়তে দেখা যায় অনেককেই। আর এতে নতুন এক হয়রানি ও ভোগান্তিতে পড়েছেন ব্যাচেলর বাসাবাড়িতে থাকা মানুষেরা। এতো অল্প সময়ে আবাসস্থল ছেড়ে কোথাও যাওয়ার জায়গাও পাচ্ছেন না। আবার অনেকেই রাজধানী ছাড়ার জন্য বাস বা লঞ্চের টিকিট পাচ্ছেন না বলেও জানান।

মণিপুরি পাড়ার এক মেসে থাকা রাজধানীর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নূরে আলম বলেন, হঠাৎ করেই বাসার মালিক ফোন দিয়ে বলেন তাড়াতাড়ি বাসায় এসে ফ্ল্যাট খালি করে দিতে। ফ্ল্যাট ছেড়ে যাবো সমস্যা নেই, কিন্তু এতো দ্রুত কোথায় যাবো? একে তো আজ বৃহস্পতিবার। ভৈরব যাওয়ার জন্য ট্রেন বা বাসের টিকিট কিছুই পাচ্ছি না।

নিকুঞ্জ-২ এর একটি ভবনে ব্যাচেলর হিসেবে থাকেন ফিল্যান্সার নাইমুর রহমান সুফি। তিনি বলেন, বাসার দারোয়ান এসে জানিয়ে গেলো থানা থেকে পুলিশ এসে বলে গেছে আজ সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে সব ব্যাচেলরকে বাসা ছেড়ে চলে যেতে। ভোটের পরে ফিরতে। আমাদের ভবনে থাকা বেশ কয়েকজন ইতোমধ্যে চলেও গেছে। কেউ কেউ হয়তো আজ রাত বা আগামীকাল সকালের মধ্যে চলে যাবে। আমরা খুব সমস্যায় পড়ে গেলাম।

জানা যায়, রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন জেলা শহরেও থাকা ব্যাচেলর এবং হোস্টেল আজকের মধ্যে খালি করে দিতে বলেছে স্থানীয় প্রশাসন।

তবে ব্যাচেলরদের এভাবে বাসা ছেড়ে দেওয়ার জন্য ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে কিনা তা এখনো জানা নেই ডিএমপির মুখপাত্র উপ-পুলিশ কমিশনার (জনসংযোগ) মাসুদুর রহমানের। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, এমন কোনো নির্দেশনা ডিএমপি দিচ্ছে কিনা তা এখনও জানা নেই আমার।

তবে ক্ষিলখেত এলাকায় ব্যাচেলর ও হোস্টেল খালি করে দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানান খিলক্ষেত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, আমরা এ ধরনের নির্দেশনা দিয়েছি। আজ সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে বাসা খালি করতে হবে। একদম নির্বাচনের পরেই তারা আবার বাসায় ফিরে আসতে পারবেন।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে এমন নির্দেশনার বিষয়টি স্বীকার করেন ডিএমপির একটি থানার পরিদর্শক পদমর্যাদার এক কর্মকর্তা।