দিনাজপুরে ধানের শীষের প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা, আহত-১০

দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনে ২০ দলীয় ঐক্যজোট বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীকের জামায়াতের প্রার্থী মাওলানা মোহাম্মদ হানিফের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছে, কমপক্ষে ১০ জন। ৩টি মোটর সাইকেলে অগ্নিযোগ করে জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪ টায় দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ নং মরিচা ইউনিয়নের চৌদ্দহাট কালীবাজার নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ ধানের শীষ প্রতীকের জামায়াতের প্রার্থী মাওলানা মোহাম্মদ হানিফের।

তাঁর অভিযোগ, নির্বাচনী প্রচারণার সময় হঠাৎ অতর্কিত হামলা চালায় নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় ধানের শীষ প্রতীকের ১০ নেতা-কর্মীকে আটক করে রাখে তারা। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে অভিযোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন ধানের শীষ প্রতীকের জামায়াতের প্রার্থী মাওলানা মোহাম্মদ হানিফ।

তবে ধানের শীষ প্রতীকের জামায়াতের প্রার্থী মাওলানা মোহাম্মদ হানিফের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা,ভাংচুর,অগ্নিসংযোগের ঘটনা অস্বীকার করেছেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামীলীগের এমপি মনোরঞ্জনশীল গোপাল।

বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্মা (ওসি) শাকিলা পারভীন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও জানান, জেলায় আমাদের নির্বাচনী মিডিয়া সেল রয়েছে। সেখান থেকে জেনে নিন। আমাদের বলা নিষেধ আছে।

এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে উক্তেজনা বিরাজ করছিলো। অপরদিকে নির্বাচনী প্রচারনায় বাঁধা ও পুলিশি হয়রানী বন্ধের দাবীতে দিনাজপুর-২ আসনের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সাদিক রিয়াজ চৌধুরী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। মঙ্গলবার দুপুরে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে এ সাংবাদিক সম্মেলন করেন তিনি।

এসময় দিনাজপুর-২ আসনের ধানের শীষ প্রতীকের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী সাদিক রিয়াজ চৌধুরী অভিযোগ করেন, তাঁর বিভিন্ন ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মারপিটসহ নির্বাচনী প্রচারে বাধা প্রদান করছে। এছাড়াও বিএনপি’র নির্বাচনী অফিস গুলো ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে।

বিনা কারনে বিএনপি’র নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেপ্তার ও হয়রানী বন্ধ হয়নি বলেও তিনি অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে তিনি জেলা রির্টানিং অফিসার বরাবর ২বার লিখিত অভিযোগ করলেও কোন কাজ হয়নি। অন্যান্য আসনের মত দিনাজপুর-২ আসনেও সমানভাবে সেনাবাহিনী মাঠে রাখার দাবী জানান তিনি।

শেখ জাকির হোসেন, বিরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি