রাশিয়া এবং চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রে আতঙ্কিত যুক্তরাষ্ট্র!

রাশিয়া এবং চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের অগ্রগতিতে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত তথ্যানুযায়ী, চীন-রাশিয়ার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার প্রতিরোধ করার সামর্থ্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নেই। আর তাই দেশটি এখন আতঙ্কের মধ্যে আছে।

বর্তমানে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো নিজেদের সামরিক বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করতে মরিয়া। আর তারই জের ধরে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রতে ব্যাপক অগ্রগতি এনেছে রাশিয়া এবং চীন। আর তা দিয়ে হামলা হলে সেটা প্রতিরোধ করার সামর্থ্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নেই বলে দেশটির সরকারি একটি প্রতিবেদনে তথ্য প্রকাশ পেয়েছে। সম্প্রতি প্রকাশিত এ প্রতিবেদন বলছে, ওই দুই দেশের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের হামলা যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরোধ করতে পারবে না এ কারণেই যে, এসব উচ্চ প্রযুক্তির অস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের বেশির ভাগ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেঙে দিতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের দায়িত্বশীল দফতরের (জিএও) প্রতিবেদন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, রাশিয়া এবং চীন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের চর্চা করে যাচ্ছে। এর কারণে তারা এসব অস্ত্রের গতি, উচ্চতা এবং দক্ষতা দিয়ে অনেক বেশি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা পরাস্ত করতে পারবে। সেইসঙ্গে এ হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে প্রচলিত দীর্ঘ পরিসীমা এবং পারমাণবিক অস্ত্রের আঘাতের শক্তি উন্নত করা যেতে পারে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, রুশ এবং চীনা এন্টি স্যাটেলাইট অস্ত্র ও গোপন এয়ারক্রাফট- যা দ্রুতগতিতে উড়তে, উন্নত অস্ত্র বহনে এবং অনেক দূরত্বে যেতে সক্ষম। যে কারণে মার্কিন নিরাপত্তা এখন চ্যালেঞ্জে। এছাড়া কাটিং-ইডিজিই প্রযুক্তির এসব অস্ত্রের দ্রত বিকাশ মার্কিন এয়ারক্রাফটের জন্য হুমকি। সেইসঙ্গে ঝুঁকির মধ্যে দেশটির বিভিন্ন ক্ষেত্রও।