আওয়ামী লীগে যোগদান না করায় মসজিদের ঈমামের উপর হামলার অভিযোগ

ফরিদপুরের সালথায় বিএনপির দলীয় লোক হওয়ার অপরাধে ও আওয়ামীলীগে যোগদান না করার কারণে জাহিদুর রহমান নামে এক মসজিদের ঈমামের উপর হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগের লোকজন, এমনই অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ১০ টায় উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের পুটিয়া বাজারে ইমরান নামক এক ব্যক্তির মুদির দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, পুটিয়া গ্রামের দারুস সালাম জামে মসজিদের ঈমাম একই গ্রামের
মৃত মানিক খাঁনের পুত্র হাফেজ জাহিদুর রহমানের উপর এই হামলা চালানো হয়।

স্থানীয়রা জানান, ঈমাম হাফেজ জাহিদুর রহমানকে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা খসবু মোল্যা ও তার লোকজন ঈমাম সাহেবকে দলে ভিড়ানোর জন্যে প্রস্তাব দেয় । তিনি তা মেনে না নেওয়ার কারণে এই হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। পরে তাকে স্থানীয় চিকিৎসক দ্বারা প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ঈমান হাফেজ জাহিদুর রহমান সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমাকে আওয়ামীলীগ নেতা খসবু ও তার লোকজন তাদের দলে মিশার জন্যে প্রস্তাব দেয় আমি তা প্রত্যাখ্যান করি এই কারণে আমার উপর, পুটিয়া গ্রামের রোকন মোল্যার ছেলে কবির মোল্যা, ছয়জদ্দিন মোল্যার ছেলে চান্দু মোল্যা, হারুন মাতুব্বর, ধলা মাতুব্বর এই হামলা চালায়।

অভিযুক্ত আওয়ামীলীগ নেতা খসবু মোল্যা হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শুনেছি ওই মসজিদের ঈমাম রাতের অন্ধকারে আমাদের আওয়ামী লীগের পোস্টার ছিড়ে ফেলে। পরে কিছু ছেলেপেলেদের সাথে তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। তার উপর কেউ হামলা চালায় নি।

সালথা থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) দেলোয়ার হোসেন খাঁন বলেন, এব্যাপারে এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি । অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি