বিএনপির আড়াই লাখ নেতা-কর্মীর তালিকা করেছে পুলিশঃ রিজভী

অবৈধ সরকার আগামী নির্বাচনে নিশ্চিত ভরাডুবি আঁচ করতে পেরে হামলা ও গ্রেফতার বাড়িয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তিনি এই অভিযোগ করেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আজ এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে রুহুল কবির রিজভী বলেন- ‘নির্বাচনী মাঠ ফাঁকা করতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারের পুলিশ বাহিনী চিরুনি অভিযানের পরিকল্পনা করেছে। সারাদেশে জনগণ এখন ঐক্যবদ্ধ। খালেদা জিয়াকে মুক্ত এবং আওয়ামী হানাদারদের কবল থেকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে-আইজিপি সব ডিআইজি ও এসপিদের ঢাকায় তলব করেছেন আজ। অবৈধ সরকার আগামী নির্বাচনে নিশ্চিত ভরাডুবি আঁচ করতে পেরে হামলা ও গ্রেফতার বাড়িয়ে দিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শত বাধা বিপত্তি-গ্রেফতার ও হামলা উপেক্ষা করে চারদিকে ধানের শীষের যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, সেটিকে থামিয়ে দিতেই পুলিশ এ অভিযানের পরিকল্পনা নিয়েছে। বিএনপিকে বেকায়দায় ফেলার জন্য যা যা করার দরকার আওয়ামী লীগ তাই করবে। পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকলে বিভিন্ন অজুহাতে নির্বাচন বানচালও করে দিতে পারে তারা। সে কারণে আমরা গতকাল দলের পক্ষ থেকে আজকেই সেনা মোতায়েনের দাবি করেছিলাম। কিন্তু আমাদের দাবির ঘণ্টাখানেক পরই তড়িঘড়ি করে নির্বাচনের দিনের পাঁচ দিন আগে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিল ইসি। তবে আমরা সব বাধা অতিক্রম করে নির্বাচনের দিন পর্যন্ত ভোটের লড়াই করে যাব।’

উল্লেখ্য, পুলিশ বিএনপির আড়াই লাখ নেতা-কর্মীর একটি তালিকা করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।