কাল থেকে চলবে মিছিল, মিটিং ও সমাবেশ

আগামীকাল থেকে সারাদেশে শুরু হবে জমজমাট নির্বাচনী প্রচারণা। ২৮ ডিসেম্বর মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত চালানো যাবে এই প্রচারণা। তবে প্রচারের সময় আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘন ঠেকাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দিয়েছে ইসি।

আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা শুরু হবে। ইসি সচিবালয়ের নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান জানান, চূড়ান্ত প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর থেকেই ২৮ ডিসেম্বর মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত প্রচারণা চালাতে পারবেন। সে হিসেবে এবার প্রার্থীরা ১৯ দিন প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারবেন। সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা চূড়ান্ত প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর প্রার্থী এবং তার সমর্থকরা নির্বাচনী এলাকায় প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারবেন।

অনেকেই প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর প্রতীক ছাপাতে দিয়েছেন। এ ছাড়া আওয়ামী লীগ সরকারের ১০ বছরের উন্নয়ন সম্বলিত লিফলেট ছাপাতে দিয়েছেন কেউ কেউ। বিএনপি প্রার্থীরা বিএনপি সরকারের শাসনামল, জিয়াউর রহমানের শাসনামল ও তাদের সময় উন্নয়ন সম্বলিত লিফলেট তৈরি করছেন। এতদিন প্রার্থীরা ঘরোয়া মিটিং করে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন। আজ থেকেই প্রার্থীরা পুরো প্রচার প্রচারণায় নামছেন। এখন থেকে প্রার্থীরা মিছিল, মিটিং ও সমাবেশ সব করতে পারবেন।

তবে প্রচারের সময় আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘন ঠেকাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দিয়েছে ইসি। পাশাপাশি ভোটের মাঠে রয়েছে ১২২টি নির্বাচনী তদন্ত কমিটি (ইলেক্ট্রোরাল ইনকোয়ারি কমিটি)। এসব কমিটির কাছে প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা নির্বাচনী অপরাধ ও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ জানাতে পারবেন।