আরও ৯ প্রযুক্তি কোম্পানিকে জমি বুঝিয়ে দিল বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক

গত ২৮ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ সরকারি-বেসররকারি মিলিয়ে আরও ৯ টি প্রযুক্তি কোম্পানিকে প্রায় ২৯ একর জায়গা বরাদ্দ দিয়েছিল। আর গতকাল রোববার কোম্পানিগুলোকে জমি বুঝিয়ে দেয়া হয়। শর্তসাপেক্ষে ৪০ বছরের জন্য ইজারা দেয়া হয়েছে এই জমিগুলো।

বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কে কারখানা ও প্রতিষ্ঠানগুলো পুরোদমে চালু হলে প্রায় ১৫ থেকে ২০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এই লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানগুলো প্রাথমিক প্রস্তাবে সর্বমোট ১ হাজার ৫২৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বলে জানা যায়। শর্তসাপেক্ষে ৪০ বছরের জন্য ইজারা দেয়া এসব জমির প্রতি বর্গমিটারের জন্য কোম্পানিগুলো সরকারকে বছরে ২ মার্কিন ডলার ভাড়া দেবে। পার্কে পণ্য ও সেবা উৎপাদনকারী সব কোম্পানি আগামী ১০ বছর ট্যাক্স হলিডে অর্থাৎ কর অবকাশ সুবিধা পাবে। এক দশক পরেও থাকবে বিভিন্ন ধরনের কর ছাড় ও রেয়াতের সুবিধা।

অন্যদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একটি প্রকল্পের আওতায় সেবা দিতে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কে চার একর জায়গা রাখা হয়েছে। ওই প্রকল্পের আওতায় সব মিলে ৯৪১ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে। কী ধরনের সেবা দিতে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে সেটির বিস্তারিত বলা না হলেও ১০ থেকে ১৫ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পার্কে ডেটা সফট (২.৭৫ একর), আমরা হোল্ডিংস (৩.৫০ একর), এসবিটেল এন্টারপ্রাইজ (৫.১৬ একর), ইউনিয়ন বাংলাদেশ অ্যান্ড সিসটেক ডিজিটাল (৩.৩৫ একর) জায়গা পেয়েছে। এছাড়া ডেভনেট ও স্পেকট্রাম ইঞ্জিনিয়ারিং কনসোর্টিয়াম পেয়েছে ২ একর করে জায়গা। আর ১ একর করে জায়গা পেয়েছে মিডিয়াসফট ডেটা সিস্টেম ও ইউওয়াই সিস্টেম।

হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম জানান, পার্কের বরাদ্দ করা জায়গার বাইরে আরও প্রায় ৫৫ একর জায়গা সরকারের কাছ থেকে পাওয়া গেছে। অতিরিক্ত বরাদ্দ পাওয়া এ জায়গা থেকেই কোম্পানিগুলোকে প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদন ও সেবা দিতে জমি দেয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, শর্ত মোতাবেক প্রতিষ্ঠানগুলোকে আগামী তিন মাসের মধ্যে প্লট ব্যবহারের বিস্তারিত পরিকল্পনা জমা দিতে হবে। আর ছয় মাসের মধ্যে অবকাঠামো নির্মাণসহ দৃশ্যমান কাজ শুরু করতে হবে।