প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন ‘কেদারনাথ’ এর প্রযোজক প্রেরণা

গত শুক্রবার গভীর রাতে বলিউডের প্রযোজক প্রেরণা অরোরাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুরে মুম্বাইয়ের এসপ্ল্যানেড আদালতে তোলা হয় প্রেরণাকে। জানা যায়, অরোরার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ করেন পূজা ফিল্মসের অধিকর্তা বাসু ভাগনানি।

গত ১৪ জুলাই মুম্বাই পুলিশের কাছে প্রেরণা অরোরার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ করেন পূজা ফিল্মসের অধিকর্তা বাসু ভাগনানি। তিনি অভিযোগপত্রে লিখেছেন, প্রেরণা অরোরা চুক্তি ভঙ্গ করে ‘কেদারনাথ’ সিনেমার স্বত্ব রনি স্ক্রুওয়ালার হাতে তুলে দেন। এর ফলে বাসু ভাগনানির ১৬ কোটি রুপি ক্ষতি হয়েছে। পরে এই অভিযোগ মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হয়।

প্রেরণা অরোরাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশের অপরাধ দমন বিভাগের ইকোনমিক অফেন্সেস উইংয়ের তদন্তকারীরা তাঁকে হেফাজতে নেয়। এরপর গতকাল মুম্বাইয়ের এসপ্ল্যানেড আদালতে তোলা হয় তাকে। দীর্ঘ শুনানির পর বিচারক পি ভি বুলবুল ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রেরণাকে পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। আগামীকাল সোমবার মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়। এসপ্ল্যানেড আদালতে শুনানির সময় সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রেরণার বাবা। জামিনের আবেদন বাতিল করে পুলিশ হেফাজতে থাকার নির্দেশ দেওয়ার পর আদালতে কান্নায় ভেঙে পড়েন প্রেরণা। বাবাকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে শুরু করেন তিনি।

এদিকে সংবাদমাধ্যমের কাছে প্রেরণা অরোরার আইনজীবীর দাবি করেছেন, উপযুক্ত কারণ ছাড়াই পুলিশ প্রেরণাকে গ্রেপ্তার করেছে। আর আদালতে পুলিশ বলেছে, গ্রেপ্তারের সময় প্রেরণার কাছে একাধিক পাসপোর্ট পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, প্রেরণা অরোরা আর তাঁর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রিআর্য এন্টারটেইনমেন্ট এরই মধ্যে ‘রুস্তম’, ‘টয়লেট এক প্রেম কথা’, ‘প্যাডম্যান’ আর ‘পারি’ ছবির প্রযোজনার সঙ্গে যুক্ত ছিল। প্রেরণা সর্বশেষ জড়িত ছিলেন ‘কেদারনাথ’ ছবির সঙ্গে। তিনি ‘পরমাণু’, ‘ফ্যানি খান’, ‘বাত্তি গুল মিটার চালু’ আর ‘কেদারনাথ’ ছবির জন্য বিতর্কে জড়িয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here