আইএসআইয়ের সঙ্গে তারেকের গোপন বৈঠক

আইএসআইয়ের (পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা) সঙ্গে গোপনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান লন্ডনে বৈঠক করেছে বলে অভিযোগ করেছে আওয়ামী লীগ। আর একে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে দেখছে ক্ষমতাসীন দলটি।

আওয়ামী লীগ অভিযোগ করেছে, তারেক রহমান লন্ডনে আইএসআইয়ের সঙ্গে গোপনে বৈঠক করেছে। এছাড়া পাকিস্তানি দূতাবাসে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামেরও গোপন বৈঠক হয়েছে। আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আজ রোববার দুপুরে দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান।

আবদুর রহমান বলেন, ‘একটি রাষ্ট্রের সঙ্গে আরেকটি রাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কের কারণে দূতাবাসের সঙ্গে যাতায়াত থাকতে পারে। তবে বিজয়ের এই মাসে আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে পাকিস্তান দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ জনমনে প্রশ্নের সঞ্চার করে। একদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে লন্ডনে তারেক রহমানের সঙ্গে আইএসআইয়ের সঙ্গে গোপন বৈঠক, অন্যদিকে পাকিস্তানি দূতাবাসে মির্জা ফখরুলের গোপন বৈঠক ষড়যন্ত্রের আভাস দেয়। দুই বৈঠক একই সূত্রে গাঁথা। এই সাক্ষাৎ আসন্ন নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের অংশ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনার রাজনীতিকে বিনষ্ট করার দুরভিসন্ধি।’

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আফজাল হোসেন প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।