শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বাংলা চলচ্চিত্রের বর্ষীয়ান অভিনেতা মঞ্জুর হোসেন

গতকাল শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বাংলা চলচ্চিত্রের বর্ষীয়ান অভিনেতা মঞ্জুর হোসেন মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর এই অভিনেতার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

বার্ধক্যজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বনানীতে নিজ বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অভিনেতা মঞ্জুর হোসেন। তিনি মিরপুরের বাসিন্দা ছিলেন। সেখানে শুক্রবার সন্ধ্যায় তার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার এক ছেলে দেশের বাইরে থাকেন। তিনি শনিবার দেশে আসবেন। এরপর মঞ্জুর হোসেনকে কোথায় দাফন করা হবে সে বিষয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তাই রাতে তার মরদেহ বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে হবে বলে জানা যায়।

তার জন্ম ১৯৩৭ সালে। মঞ্জুর হোসেন একাধারে অভিনেতা, পরিচালক, প্রযোজক ছিলেন। জীবনের শেষ সময়ে এসে মঞ্জুর হোসেন ব্যবসাতে মন দিয়েছিলেন বেশি। রাজধানীর নবাবপুরে তার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। অভিনয় না করলেও প্রায় সময়ই তিনি বিএফডিসিতে আসতেন। তবে গত প্রায় দুই বছর ধরে তাকে আর এখানে দেখা যায়নি।

তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘রাজধানীর বুকে’। এরপর তিনি ‘হারানো দিন’, ‘ধারাপাত’, ‘সাত রং’, ‘তালাশ’, ‘শীত বিকেল’, ‘বন্ধন’, ‘মিলন’, ‘কাজল’, ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’, ‘কাঞ্চন মালা’, ‘ছোট ‘নয়ন তারা’, ‘তুম মেরে হো’, ‘কুলি’, ‘রূপবান’সহ অসংখ্য সিনেমায় অভিনয় করেছেন।