গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করতে মরিয়া আওয়ামী লীগঃ রিজভী

আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে আওয়ামী লীগ।

রুহুল কবির রিজভীর অভিযোগ গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করতে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা উপ-কমিটির সদস্যরা নিয়মিত ইসিতে যাতায়াত করে সেখানে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। রিজভী বলেন, ‘সাংবাদিকদের প্রশ্ন পছন্দ না হলে তাদের রাজনৈতিক দলের কর্মী বলে ট্যাগ দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, সাংবাদিকদের লিস্ট করে তাদের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এমনিতে ভোট কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রবেশে নির্বাচন কমিশন কঠোর বিধিমালা জারি করেছে, তাতেও আশ্বস্ত না হতে পেরে এখন গণমাধ্যমকে সম্পূর্ণরুপে নিয়ন্ত্রণ করতে তারা মরিয়া হয়ে উঠেছে৷’

রুহুল কবির রিজভী আরও বলেন, ‘আগামী রোববার রাতে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের বাসায় ইসি বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের ডাকা হয়েছে। আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন বলে রোববার রাত আটটায় ১ নম্বর হেয়ার রোডের বাসভবনে সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়ে বার্তা পাঠিয়েছেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘মতবিনিময়ের নামে মূলত গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণের কৌশল নিয়েছেন এইচ টি ইমাম। এমনিতে ভোট কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রবেশে নির্বাচন কমিশন কঠোর বিধিমালা জারি করেছে। তাতেও আশ্বস্ত না হতে পেরে এখন গণমাধ্যমকে সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রণ করতে তারা (সরকার) মরিয়া হয়ে উঠেছে।’

এছাড়াও, তফসিল ঘোষণার পর থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেন, সারা দেশে গ্রেফতার ও মিথ্যা মামলার হিড়িকে নেতাকর্মীদের জীবন বিপন্ন ও বিপর্যস্ত। কোনো মামলা ছাড়াই অনেককে গ্রেফতার করা হচ্ছে। নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি করা হচ্ছে।