কক্সবাজারের জননেতা এম পি বদির গাড়িতে গুলি চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা

কক্সবাজারের উখিয়া থেকে টেকনাফ ফেরার পথে কক্সবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুর বহমান বদির গাড়িতে গুলি চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আজ শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উখিয়া থেকে টেকনাফ ফেরার পথে হোয়াইক্যং ইউনিয়ের কাঞ্জরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলি লেগে গাড়ির পেছনের কাচ ভেঙে যায়। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি।

কারা এবং কেন এই হামলা চালিয়েছে, সে বিষয়ে নিশ্চিত নয় পুলিশ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এ সময় গাড়িতে ছিলেন— এমপি বদি, টেকনাফ পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ফরিদুল আলম ও ড্রাইভার।

পুলিশ জানায়, গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে উখিয়া থেকে টেকনাফ ফেরার পথে হোয়াইক্যং কাঞ্জরপাড়া এলাকায় এই গুলির ঘটনা ঘটে।

এম পি বদির ব্যক্তিগত সহকারী মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন। তিনি বলেন,  ‘শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) বিকালে উখিয়ার প্রয়াত অ্যাডভোকেট একে আহমেদ হোসেন মিয়ার কুলখানি শেষে টেকনাফ ফেরার পথে কাঞ্জরপাড়া এলাকায় পৌঁছলে দুর্বৃত্তরা সংসদ সদস্য বদির গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে গাড়ির দুটি কাচ ভেঙে যায়। এ সময় তার সঙ্গে সাবেক কাউন্সিলর ফরিদ আহমেদ ছিলেন।’

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস বলেন,‘এমপির গাড়িতে হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। তবে কারা এ ঘটনার সঙ্গে  জড়িত, তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।’

এ ঘটনার পর সংসদ সদস্য বদি সাংবাদিকদের বলেন, ‘টেকনাফে ফেরার পথে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মৌলভী নুর আহমদ আনোয়ারীর ঘরের সামনে কিছু মানুষ দেখে গাড়ি থেকে নেমে তাদের সঙ্গে কথাবার্তা বলি। সেখান থেকে আধ কিলোমিটার দূরে কাঞ্জরপাড়া এলাকায় পৌঁছলে গাড়ির পেছন থেকে গুলি চালানো হয়। পরে গাড়ি থেকে বের হয়ে দেখি দুজন পালিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে একজন মোটা আরেকজন পাতলা গড়নের।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘গাড়ির আলোতে চেহারা দেখে একজনকে চিনতে পেরেছি। তার নাম আবদুল্লাহ। আরেকজন তার শ্যালক।’

এদিকে টেকনাফ উপজেলা বিএনপির মহাসচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহর শ্বশুরবাড়ি কাঞ্জরপাড়া এলাকায় বলে খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বদির সমর্থকরা কাঞ্জরপাড়া এলাকায় মিছিল বের করেন।

প্রসঙ্গত,  আসন্ন সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে এবার বদির স্ত্রী শাহিন আক্তার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।