প্রধানমন্ত্রী দেখার পরই চূড়ান্ত হবে ‘দহন’ ছবিটির মুক্তির দিন

সন্ত্রাস ও মাদককে নিরুৎসাহিত করতে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘দহন’ মুক্তি পাওয়ার আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা দেখবেন বলে জানা গেছে। আগামী ১০ নভেম্বর তিনি ছবিটি দেখবেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেলেও সময় ও স্থান এখনও জানা যায়নি।

মম-সিয়াম-পূজা অভিনীত চলচ্চিত্র ‘দহন’। সন্ত্রাস ও মাদককে নিরুৎসাহিত করতে চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়েছে। আর এমন বিষয়ের উপর ভিত্তি করে নির্মিত ছবি হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মুক্তির আগেই তিনি ছবিটি দেখবেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চলচ্চিত্রটি সংশ্লিষ্ট একাধিকজন। প্রধানমন্ত্রী ছবিটি দেখার পরই মুক্তির দিন চূড়ান্ত করা হবে। ধারণা করা হচ্ছে, চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে।

ছবিটির নির্মাতা রায়হান রাফী জানান, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এটি দেখার জন্য মনস্থির করেছেন, এমন খবরে আমরা সত্যিই খুশি। তবে সময় ও স্থানটি এখনও চূড়ান্ত নয়।এ চলচ্চিত্রটি হলো রাজনৈতিক অস্থিরতা কিংবা আগুন সন্ত্রাসকে নিয়ে। কয়েক বছর আগে আমাদের দেশে এমন ঘটনা অহরহ হয়েছে। তখন মানুষের জীবন হয়ে গিয়েছিল সবচেয়ে অনিরাপদ। ছবিতে এই গল্পটিই তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী দেখার পরই চূড়ান্ত হবে ‘দহন’ ছবিটির মুক্তির দিন

নির্মাতা রায়হান রাফী ছবিটি প্রদর্শনের তারিখ প্রকাশ না করলেও অভিনেত্রী মনিরা মিঠু এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে জানান, ১০ নভেম্বর ছবিটি দেখার সম্ভাবনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। মিঠুর পোস্ট অনুযায়ী, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১০ তারিখে ছবিটা দেখবেন। ছবিটি দেখে মনিরা মিঠুর চোখের পানির সঙ্গে নিশ্চয়ই প্রধানমন্ত্রীর চোখের পানিও পড়বে, এটা আমি নিশ্চিত। ধন্যবাদ জাজ মাল্টিমিডিয়া, ধন্যবাদ দহন টিমকে।’ ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া।

প্রধানমন্ত্রী দেখার পরই চূড়ান্ত হবে ‘দহন’ ছবিটির মুক্তির দিন

‘দহন’ ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে আছেন সিয়াম আহমেদ ও পূজা। সিয়াম এখানে নেশাগ্রস্ত যুবকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। আর পূজাকে দেখা যাবে গার্মেন্ট মেয়ের চরিত্রে। আর সাংবাদিক হিসেবে দেখা যাবে জাকিয়া বারী মমকে। আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় আছেন মনিরা মিঠু।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here