ঝালকাঠিতে কোর্টের সামনে ইভটিজিং কালে যুবককে জুতাপেটা

ঝালকাঠি কোর্টের সামনে বার সমিতির গেটে বিবাদীর বোনকে ইভটিজিংকালে এক যুবককে জুতাপিটা করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে ঝালকাঠি সদর উপজেলার লেশপ্রতাপ গ্রামের রেহেনা বেগম তার ভাই মন্টু মেম্বরের মামলার জামিন শুনানী শেষে কোর্ট থেকে বের হওয়ার পথে মামলার বাদী সদর উপজেলার বাড়ইগাতি গ্রামে এসাহাক তালুকদার অশালিন মন্তব্য করে ইভটিজিং করলে রেহেনা বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে জুতাপেটা করেন বলে জানিয়েছেনে ভুক্তভোগীর আত্মীয়স্বজন।

ঘটনা বিবরণে জানা যায়, বাসন্ডা ইউনিয়নের লেশপ্রতাপ গ্রামের মন্টু মেম্বর ও একই ইউনিয়নের বাড়ইগাতি গ্রামের এসাহাক তালুকদারের সাথে একটি ফৌজদারী মামলা বিচারাধীন আছে। উক্ত মামলায় মন্টু মেম্বর জেলহাজতে থাকায় তার জামিনের শুনানীর দিন ধার্য ছিল উক্ত ঘটনার দিন।

রেহেনা বেগম সাংবাদিকদের জানায়, আমার ভাই মন্টু মেম্বর এর আজ(মঙ্গলবার) জামিন শুনানী শেষে আমি কোর্ট থেকে বের হওয়ার পথে এসাহাক তালুকদার আমাকে আজেবাজে কথা বলে মন্তব্য করলে আমি উহার প্রতিবাদ করি। আমার শরীরে হাত দেয়ার চেষ্টা করলে এক পর্যায় আমার আত্মরক্ষার জন্য আমি তাকে পায়ের জুতো দিয়ে পিটিয়ে প্রতিরোধ করি।

অপরদিকে ইভটিজার এসাহাক তালুকদার সাংবাদিকদের সাথে সাক্ষাৎকালে জানান, রেহেনা বেগমের ভাইয়ের সাথে আমার মামলা থাকায় আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য রেহেনা বেগম আমাকে জুতো দিয়ে আঘাত করেছেন।

কোর্ট এর কর্তব্যরত পুলিশ অফিসার সুরমা জানান, আজ একটি অপ্রীতিকার ঘটনা ঘটেছে।আমরা তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিয়েছি। বিষয়টি বিচারক কবির আহম্মেদ স্যার বিস্তারিত শুনে ব্যবস্থা নিবেন।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েক জন পথচারী জানান মহিলাকে উদ্দেশ্য করে উক্ত যুবকটি আজেবাজে কথাবার্তা বলতে দেখা গেছে। তখন উক্ত মহিলা যুবকটির উপর চড়াও হতে দেখা গেছে।