সিরাজদিখানে মুদি দোকানদার এখন সাংবাদিক!

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বয়রাগাদী ইউনিয়নের ছোট পাউলদিয়া গ্রামের মুদি দোকানদার প্রানতোষ দেবনাথ এখন সাংবাদিক! তার এই সাংবাদিকতার পেছনে আছেন আরেক সাংবাদিক। যে কিনা অর্থের বিনিময়ে মানুষকে সাংবাদিক বানিয়ে তার কাজে লাগাচ্ছেন।

১৭ সেপ্টেম্বর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ওই মুদি দোকানদার প্রানতোষ দেবনাথ তার পত্রিকার ভিটিজিং কার্ড পোষ্ট করে প্রকৃত সাংবাদিক বনতে চাইছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ স্থানীয়রা ব্যপক সমালোচনা করে বলছেন, একজন মুদি দোকানদার কিভাবে সাংবাদিক হয়।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রানতোষ দেবনাথ একজন নারীলোভী ও বখাটে প্রকৃতির লোক। তার বিরুদ্ধে পূর্বে অনেক নারী কেলেঙ্কারীও রয়েছে। কিছুদিন পূর্বে সিরাজদিখানে এক নেতার বাড়ীতে তার নারী গঠিত বিষয় নিয়ে বিচাল সালিশ করা হয়। এতে প্রানতোষ দেবতাথের স্ত্রী সন্তানের সামনে তাকে চর থাপ্পর, লাথি ও আর্থিক জরিমানাও করা হয়। ওই সালিশে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সিরাজদিখান প্রতিনিধি সুব্রত দাস রনক। আরো জানা গেছে, বখাটে প্রানতোষ দেবনাথকে সাংবাদিক বানানোর কারীগর সুব্রত দাস রনক। প্রানতোষ সাংবাদিকের পরিচয় দিয়ে এলাকার বিভিন্ন অপকর্ম করে বেরাচ্ছেন। তার অপকর্মে বাধা দেওয়ার যেন কেউ নেই। কারণ তার পেছনে রয়েছেন সুব্রত দাস রনক।

এ বিষয়ে সিরাজদিখান প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী নজরুল ইসলাম বাবুল জানান, প্রানতোষকে একজন মুদি দোকানদার হিসেবে চিনতাম। সে আবার সাংবাদিক হলো কবে। কিছুদিন পূর্বে তার বিরুদ্ধে মেয়ে কেলেঙ্কার নিয়ে বিচার সালিশ হয়েছে শুনেছি। ঐ বিচারে যুগান্তর প্রতিনিধি সুব্রত দাস রনকও উপস্থিত ছিল। সে মুদি দোকানদার প্রানতোষকে চর থাপ্পর দিয়ে বিচার শেষ করেছে বলে আমরা আর ওই দিতে খতিয়ে দেখিনি। সিরাজদিখানে দুইটা প্রেসক্লাব ছিল। আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে এক হয়েছি। এখানে সুনির্দিষ্ট কোন সাংবাদিক থাকে তাহলে আমাদের প্রেসক্লাবেই আসবে। যদি কোন বিতর্কিত সংগঠনের পরিচয় দিয়ে কেউ সাংবাদিকদের সম্মান হানি করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি