জাতিসংঘের দ্বারস্থ হচ্ছে সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি

এবার জাতিসংঘের দ্বারস্থ হচ্ছে সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি। ভারত মিশন কার্যত ব্যর্থ হওয়ার পর এবার এ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে দলটি। এ লক্ষ্যে দলটির দুই সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন।

সূত্র জানায়, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১টা ৪০ মিনিটে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, সরকারের পদত্যাগ, নির্বাচন কমিশন সংস্কার করে লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরিসহ বিএনপির দাবি পূরণে ভারতের সমর্থন লাভের উদ্দেশ্যেই এ সফর বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে বিএনপি প্রতিনিধি দলের নিউইয়র্ক যাত্রার বিষয়ে দলের চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।’ এছাড়া তারা জাতিসংঘের কোন কর্মসূচিতে অংশ নিতে যাচ্ছেন সে বিষয়েও তথ্য পাওয়া যায়নি।

দলীয় সূত্র জানায়, নির্বাচনের আগে জাতিসংঘকে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে দেখতে চায় বিএনপি। দলটির নেতারা মনে করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ এশিয়া নীতি ভারতের কূটনৈতিক কৌশলের বাইরে যাবে না। বিশেষ করে, এ অঞ্চলে চীনের প্রাধান্য কমাতে ভারতকেই পাশে চায় যুক্তরাষ্ট্র।

চলতি বছরের জুনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু এ ইস্যুতে দিল্লি সফর করেছেন। সেখানকার প্রভাবশালী সংস্থা বিবেকানন্দ ফাউন্ডেশসহ ভারতের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেও ভারত সরকারের পক্ষ থেকে কাঙ্ক্ষিত সিগন্যাল আদায় করতে পারেনি দলটি। তাতেও হাল ছাড়েনি বিএনপি।

এরপর থেকে জাতিসংঘসহ পশ্চিমা বিশ্বের দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা করছে বিএনপি। গত মার্চে বিএনপির পক্ষ থেকে জাতিসংঘে চিঠি পাঠানো হয়। তাতে বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক করতে জাতিসংঘকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানানো হয়।

এ ছাড়াও কমনওয়েলথ সম্মেলনের প্রাক্কালেও সদস্য দেশগুলোকে দেশের চলমান বিচার ব্যবস্থা, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কারচুপি, খালেদা জিয়ার মামলা, জামিন হওয়া না হওয়ার বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে চিঠি দেওয়া হয়। কারণ দলটির নেতারা মনে করছেন, গণতন্ত্র, মানবাধিকার ইস্যুতে পশ্চিমা দেশগুলোর যে অবস্থান তা বিএনপির পক্ষে। এ পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের মাধ্যমে ভারতের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করছে বিএনপি।