দিনাজপুরে বিক্ষুব্ধ জনতার থানা ঘেড়াও, পুলিশের লাঠিচার্জ

দিনাজপুর শহরের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা উচার মোড় থেকে মোঃ সোহেল (৩৩) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ দাবী করেছে-তার কাছ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল ও ২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। সোহেলকে অস্ত্র দিয়ে আটকের প্রতিবাদে সোমবার রাতে কোতয়ালী থানা ঘেরাও করে স্থানীয়রা।

দিনাজপুরে বিক্ষুব্ধ জনতার থানা ঘেড়াও, পুলিশের লাঠিচার্জ

বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। আটক মোঃ সোহেল দিনাজপুর শহরের দপ্তরীপাড়া মহল্লার মৃত রশিদ খালাসীর ছেলে।

দিনাজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামানা আশরাফ জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দিনাজপুর শহরের কোলঘেষা পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা রেলব্রীজ এলাকার উচার মোড় থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সোহেলকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে আমেরিকার তৈরী একটি পিস্তল ও ২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

সোহেলের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে অস্ত্র আইনে একটি মামলা এবং সে ২০১৩ সালের তোফাজ্জল হত্যা মামলার আসামী বলে জানায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ।

রাতে কোতয়ালী থানায় সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে পুলিশের সামনেই আটক সোহেল চিৎকার করে বার বার বলছিলো-এই অস্ত্র আমার কাছে ছিলো না।

পুলিশকে উদ্দেশ্য করে আটক মোঃ সোহেল বলে-এই অস্ত্র আমার কাছে ছিলো না, স্যার কেন আমাকে এই অস্ত্র দিয়ে মামলা দিচ্ছেন। এসময় অস্ত্র দিয়ে ছবি তুলতে অস্বীকৃতি জানায় সে।

এদিকে এই ঘটনার পর দপ্তরীপাড়া, হটাৎপাড়া, পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা ও উচার মোড় এলাকার শতাধিক জনতা কোতয়ালী থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ করতে থাকে। তাদের দাবী, সোহেলের কাছে কোন অস্ত্র ছিলো না। পুলিশ তাকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসিয়েছে। গত ক’দিন আগেই একটি মিথ্যা মামলায় জেল থেকে বেড়িয়েছে সে। তারা সোহেলের মুক্তির দাবী জানায়। প্রায় ২ঘন্টা বিক্ষোভ শেষে থানার প্রধান গেট ভেঙ্গে ফেলার চেষ্টা করে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ রাত সাড়ে ৯টায় তাদের উপর লাঠিচার্জ করে। এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ জনতা কোতয়ালী থানা ছেড়ে চলে যায়। রাত ১০টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর প্রতিনিধি