ধামরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একজন নিহত

ঢাকার ধামরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাতিজি জামাইদের হামলায় ওমর আলী (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রোববার (২৬ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার কুল্লা ইউনিয়নে আড়ালিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি।

ওমর আলী ধামরাইয়ের কুল্লা ইউনিয়নের আড়ালিয়া গ্রামের রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি কুল্লা ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আড়ালিয়া বাজারে নিহত ওমর আলীর একটি মার্কেট রয়েছে। সেখানে আগে থেকেই বৈদ্যুতিক মিটার লাগানো রয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি ভাতিজি জামাইরা সেখানে নতুন করে মিটার লাগায়। এ ঘটনায় দুপুরে তাদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে ভাতিজি জামাই বরিশালের মাইনুল হাসান রুবেল (৩৮), নোয়াখালীর মো. রিপন (৩৫) ও মাদারীপুরের মো. সবুজ (৩০) তাকে এলোপাতারি মারধর করে। এ সময় তাদের হামলায় এবং ইটের আঘাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

কুল্লা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শীতল সরকার বলেন, বৈদ্যুতিক মিটার লাগানোকে কেন্দ্র করে ভাতিজি জামাইরা ওমর আলীকে বেধড়ক পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবারের সদস্যরা। হত্যাকাণ্ডের পর অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছেন।

ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রাশেদ জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আবদুর রউফ, ধামরাই প্রতিনিধি