গুজব ঠেকাতে কাজ করবে বঙ্গবন্ধু সাইবার ব্রিগেডঃ গোলাম রাব্বানী

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘গুজব ছড়ানো প্রতিহত করতে’ সারাদেশে ছাত্রলীগের প্রায় ৪০ লাখ নেতা-কর্মীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু সাইবার ব্রিগেড (বিসিবি) গঠন করছে ছাত্রলীগ বলে জানিয়েছেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

তিনি বলেন, “অতি শীঘ্রই আমরা কাজ শুরু করব। ইতোমধ্যে আইটি রিলেটেড কাজ শুরু হয়ে গেছে। এই ইউনিটের মাধ্যমে কেন্দ্র থেকে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীরা একযোগে কাজ করার সুযোগ পাবে।”

রাব্বানী বলেন, “বঙ্গবন্ধু সাইবার ব্রিগেড ছাত্রলীগের সাইবার ইউনিট। এখানে কেন্দ্রীয়ভাবে ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট ছাত্রলীগ নেতাদের মাধ্যমে সারাদেশের ছাত্রলীগের পোস্টধারী নেতা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে এমন সবাইকে যুক্ত করা হবে।

“প্রত্যেকের কাজের ক্ষেত্র অনুযায়ী ক্যাটাগরি করে আলাদা আলাদা কাজ ভাগ করে দেওয়া হবে।”

সারাদেশে ছাত্রলীগের এই সাইবার ইউনিট কীভাবে কাজ করবে সে সম্পর্কে তিনি বলেন, “কেন্দ্রীয় তথ্য বিষয়ক সম্পাদকের মাধ্যমে মনিটরিং করা হবে। পাশাপাশি প্রত্যেক জেলা ইউনিটের সাথে কেন্দ্র কানেক্ট থাকবে, আর উপজেলার সাথে কানেক্ট থাকবে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।”

কাজের ধরণ বর্ণনা করে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, “নির্বাচনকে সামনে রেখে আমাদের বিভিন্ন ইস্যুতে কাজ করতে হবে। তবে গুজব প্রতিহত করা আমাদের টার্গেটের একটি অংশ। এভাবে বঙ্গবন্ধু সাইবার ব্রিগেড সারা দেশে ছড়িয়ে পড়বে।

“আমাদের প্রধান কাজ হবে সরকারের উন্নয়নের প্রচার ও সকল ধরনের গুজব প্রতিহত করা।”

পাশাপাশি সরকারের উন্নয়নের প্রচারও ছাত্রলীগের এই ইউনিট করবে বলে জানান রাব্বানী।

“প্রত্যেকটি ইউনিটের মাধ্যমে আমরা সিভি কল করে তাদের ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করব। এখানে যারা যুক্ত হবে তারা আমরা কেন্দ্র থেকে যেই কনটেইন ইউজ করবো এর বাইরে যাওয়ার তাদের কোনো সুযোগ থাকবে না।”

এছাড়া সেপ্টেম্বরে ঢাকায় ট্রাফিক ক্যাম্পেইনে ছাত্রলীগ নামবে বলেও জানান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

“সেপ্টেম্বরে ট্রাফিক ক্যাম্পেইন করব। বিআরটিএর সচেতনতামূলক কার্যক্রমগুলো নিয়ে আমরা ছাত্রলীগের সারাদেশের নেতাকর্মীদের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ব।”

ট্রাফিক আইন মেনে চলায় মানুষকে সচেতন করতে ছাত্রলীগ লিফলেট বিতরণ করবে বলে জানিয়েছেন রাব্বানী।

“প্রাথমিকভাবে ঢাকা শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে, সিগনালগুলোতে, আন্ডারপাস ও ওভারব্রিজের পাশে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মানুষকে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করবে। কেউ ট্রাফিক আইন না মানলে তাকে লিফলেট দিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করার চেষ্টা করবো।”

ফুল ও চকলেট নিয়ে ছাত্রলীগের এধরনের প্রচার চলবে জানিয়ে রাব্বানী বলেন, “ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ফুল চকলেট নিয়ে সচেতনতামূলক এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিবে।

“তবে আমরা কারও লাইসেন্স বা কাগজপত্র চেক করবো না। কার কী ডিউটি সেটা তাদের দেখিয়ে দিয়ে সচেতন করার চেষ্টা করব।”