শৈলকুপায় ক্লিনিকে সিজারিয়ান রোগীর মৃত্যু, ২লাখ টাকায় ধামাচাপা

ঝিনাইদহের শৈলকুপার পৌর এলাকার নুরজাহান ক্লিনিকে ওটি থেকে বের করার কিছু সময় পরই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লো সিজারিয়ান রোগী খাদিজা খাতুন। ঘটনারপর থেকে ডাক্তার আমিন মোস্তফাসহ বেশ কয়েকজন পলাতক রয়েছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে নুরজাহান ক্লিনিকে এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ক্লিনিকে সিজারের মাধ্যমে জমজ নবজাতক ভুমিষ্টের কয়েক ঘন্টার মাথায় মারা গেছে খাদিজা খাতুন নামের এক প্রসূতি। তার বাড়ি হাকিমপুর ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে। শুক্রবার বিকাল ৪ টার দিকে সিজারের মাধ্যমে জমজ ছেলে সন্তান ভূমিষ্ট হয়, বাচ্চা দুটি সুস্থ্য আছে।

হঠাৎ প্রসূতি মায়ের এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না তাদের পরিবার ও স্বজনেরা। ঘটনা জানার পর ক্লিনিকে ভিড় জমিয়েছে সাধারণ মানুষ। ঘটনাস্থলে পুলিশও অবস্থান করে। এদিকে বাচ্চা দুটির মা মারা যাওয়ার ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে রাতেই ২ লাখ টাকার বিনিময়ে দফা-রফা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ক্লিনিকটিতে সিজারিয়ান ডাক্তার আমিন মোস্তফা জানান, ডাক্তারি ভাষায় এটাকে এমআই বা এক ধরনের ষ্ট্রক বলে। অপারেশন বা সিজারে কোন ভূল ছিল না বলেও দাবি করেন।

মোঃ জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি