জাবিতে সেলিম আল দীনের ৬৯ তম জন্ম বার্ষিকী পালিত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যচার্য্ সেলিম আল দিনের ৬৯ তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ শনিবার সকাল ১১টায় উপ-উপাচার্য্ নুরুল আলমের নেতৃত্বে পুরাতন কলা ভবন থেকে একটা র‌্যালি বের হয় এবং সেলিম আল দীনের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী প্রদানের মাধ্যমে শেষ হয়।

 

র‌্যালির শুরুতে উপ-উপাচার্য নুরুল আলম সেলিম আল দীনের স্মৃতির কথা ষ্মরন করেন। এছাড়া তাকে মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী না্ট্য জগৎ এর কিংবদন্তি হিসেবে উল্ল্যেখ করেন তিনি।

নাসির উদ্দিন উইসুফ তার বক্তব্যে বলেন “শত বর্ষের উপনৈবিশীক সংস্কৃতির চাদর ছিন্ন করে সেলিম আল দীন বাঙাগালীর নিজস্ব নাট্যরীতি ও শীল্পরীতির উদ্ভাবন ঘটিয়েছেন সেটির জন্য আমাদের বাঙ্গালী জাতি তার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকবে। মাত্র ৫৮ বছরের জীবনে সে যা আমাদের দিয়ে গেছেন তার জন্য গত একদশকেও তার শোক কাটিয়ে উঠা আমাদের জন্য সম্ভব হয়নি। তবে তার অবদানের জন্য আমাদের উদযাপন করা দরকার।”

এছাড়া আরো বক্তব্যে রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার মনজুরুল হক, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের মহাসচিব কামাল হোসেন, কলা ও মানববিকী অনুষদের ডীন মোজাম্মেল হক, নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর আবসার উদ্দিন।

এর আগে সকাল ১০টায় পুরাতন কলা ভবনে সেলিম আল দীনের নাটকের গান পরিবেশন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

উপ-উপাচার্যের শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদনের পর নাট্যজন নাসির উদ্দিন উইসুফ, বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার, ঢাকা থিয়েটার, জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটার, বুনন থিয়েটার, তালুকনগর থিয়েটার, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র ও সেলিম আল দীনের পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগটন নাট্যজনের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জীলি নিবেদন করেন।

তিনদিন ব্যাপি অনুষ্ঠানের আজ ছিল শেষ দিন। শ্রদ্ধাঞ্জলী প্রদান শেষে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগে “গ্লোবাল ভিলেজে সেলিম আল দীন” শীর্ষ্ক এক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারে আলোচক হিসেবে ছিলেন নাট্যচার্যের সহচর নাসির উদ্দিন ইউসুফ ও অধ্যাপক ড. রশীদ হারুন।

আলোচনা সভা শেষে দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে সেলিম আল দীন রচিত ও নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ প্রযোজিত নাটক “ধাবমান” ও সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় “কিত্তনখোলা” পরিবেশন করা হয়।

রুদ্র আজাদ, জাবি প্রতিনিধি