দক্ষিণখান কৃষক লীগ আয়োজিত শোক রালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

অদ্য ১৭-০৮-২০১৮ ইং রাজধানীর দক্ষিণখান থানাধীন কৃষক লীগ কর্তৃক আয়োজিত এক শোক রালী ও অালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত শোক রালী দক্ষিণখান থানা অন্তর্গত মোল্লাবাড়ী নামক স্হানে অনুষ্ঠিত হয়ে দক্ষিণখানের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে।

উক্ত শোক রালীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও ঢাকা মহানগর উত্তরের কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জনাব মোঃ আনিসুর রহমান (স্বপন মোল্লা)। আরো উপস্থিত ছিলেন স্হানীয় নেতৃবৃন্দ। সভায় বক্তৃতা প্রদানকালে জনাব আনিসুর রহমান বলেন- আমরা বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও নীতি নিয়ে জনকল্যানকর কাজে মানুষের সেবার ব্রত হয়ে সারাজীবন কাটাতে চাই। মাটি ও মানুষের ভালবাসাই আমার একমাত্র কাম্য।

জাতিয় শোক দিবসের আলোকপাত করতে গিয়ে তিনি আরো বলেন- বাঙালি জাতির সবচেয়ে হৃদয়বিদারক-মর্মস্পর্শী শোকের দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনের কালরাত্রিতে ঘটেছিল ইতিহাসের সেই কলঙ্কজনক ঘটনা। স্বাধীনতা বিরোধী কিছু উচ্ছৃঙ্খল কুচক্রীর হাতে প্রাণ দিয়েছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। নৃশংস ওই ঘটনায় বাংলার অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সেদিন তাঁর পরিবারের বাইশ সদস্যসহ নিহত হন। চক্রান্তকারী ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে তাঁর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নকে ধুলিসাৎ করতে চেয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের, আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা তা পারেনি বরং এদেশের নতুন প্রজন্ম আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জ্বীবিত হয়েছে বলে বাংলাদেশ আজ একটি সুখী-সমৃদ্ধ, জ্ঞান ও প্রযুক্তি নির্ভর আধুনিক দেশ হিসাবে এগিয়ে চলেছে।

এরই মধ্যে বাংলাদেশ নিম্ন মধ্যেম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। বর্তমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ ২০২১ সালে সমৃদ্ধ মধ্যেম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালে উন্নত দেশে পরিণত হবে। এছাড়াও এসডিজি এর ১৭টি লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা সম্ভব হবে। শোকাবহ এ দিনে আমি গভীর শ্রদ্ধা জানাই মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের স্মৃতির প্রতি। একই সাথে জাতীয় শোক দিবসে পরম করুণাময় আল্লাহর কাছে সে-দিনের সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

আসুন, জাতির পিতাকে হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে তাঁর স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশপ্রেমের আদর্শে উজ্জ্বীবিত হয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর ঘোষিত রুপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে একটি সুখী, সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সকলে আত্মনিয়োগ করি। ঢাকা-১৮ আসন সহ সর্বস্তরের মানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে সবাই এক কণ্ঠে বলি “ জয় বাংলা – জয় বঙ্গবন্ধু”। জাতির পিতা অমর হোক——

তানজীন মাহমুদ, নিজস্ব প্রতিনিধি