মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় পাঁচ আসামির ফাঁসি

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পটুয়াখালীর ইসহাক শিকদারসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মামলার পাচঁ আসামি হলেন- মো. এছাহাক সিকদার, আব্দুল গনি, মো. আউয়াল, মো. আব্দুস সাত্তার প্যাদা এবং সোলায়মান মৃধা। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। 

আজ সোমবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করেন।

প্রসিকিউশনের অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, পাঁচ আসামির সবাই একাত্তরে ছিলেন মুসলিম লীগ সমর্থক। আর ২০১৫ সালে গ্রেপ্তার হওয়ার সময় তারা স্থানীয় বিএনপির রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন। আসামিদের বিরুদ্ধে ১৭ জনকে হত্যা ও ১৫ নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

এর আগে সকাল পৌনে ১১টার দিকে চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির ট্রাইব্যুনালে রায় পড়া শুরু করেন।

১৫৯ পৃষ্ঠার এই রায়ের প্রথম অংশ পড়েছেন বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার। রায় পড়ার সময় ট্রাইব্যুনালের কাঠগড়ায় পাঁচ আসামি উপস্থিত ছিলেন।

গত ৩০ মে পটুয়াখালীর ৫ আসামির বিষয়ে যুক্তিতর্ক শেষে যে কোনো দিন রায় (সিএভি) ঘোষণা করবে বলে আদেশ দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল আজ এ রায় ঘোষণা করবে। এটি হবে যুদ্ধাপরাধের মামলায় ৩৪ তম রায়।

এ আসামিদের বিষয়ে ২০১৭ সালের ৮ মার্চ অভিযোগ গঠন করা হয়। যুক্তিতর্কে আসামিদের সর্বোচ্চ সাজার আর্জি পেশ করে শুনানি করে প্রসিকিউশন। ২০১৫ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ট্রাইব্যুনাল এ ৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরোয়ানা জারির পর ৫ জনকেই গ্রেপ্তার করা হয়।