‘বিয়ে করে যদি দু’জনের মিল না হয়, তখন কী হবে’

অভিনেত্রী জয়া আহসান। ঢাকা ও কলকাতার ছবির শুটিংয়ের পাশাপাশি দুই বাংলার নানা অনুষ্ঠানে তার উপস্থিতি সমানতালে। বর্তমানে অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনায়ও নিজের নামটি লিখে ফেলেছেন। এছাড়া ছবিতে বেশ সাহসিক চরিত্রেও দেখা যায় থাকে। কিন্তু নিজের বিয়ের বিষয়ে জানালেন বিস্ফোরক তথ্য। তিনি নাকি বিয়ে করতে ভয় পাচ্ছেন।

জয়া আহসান বলেন, আসলে বিয়ের কথা সেভাবে এখনও ভাবিনি। একটা ভয় কাজ করে। অনেকদিন ধরে তো স্বাধীনভাবে জীবনযাপন করছি। তাই ভয়টা আরও বেশি। একবার বিয়ে করে যদি, দু’জনের মিল না হয়! তখন কী হবে? আমি চাই, যখন বিয়েটা করব, তখন সেটা ভেবেচিন্তেই করব। বিয়েটা দীর্ঘস্থায়ী হোক, সেটাই আমার সবচেয়ে বড় চেষ্টা থাকবে। তাই ভুল মানুষকে বিয়ে করতে চাই না।

দুই দেশের কাজের ব্যস্ততা নিয়ে তিনি বলেন, মাকে সময় দিতে পারি না বলে একটা অপরাধবোধ কাজ করে। তার চেয়েও খারাপ ব্যাপার হলো নিজেকে সময় দিতে পারি না। তবে আশা করি, সব সামলে নিতে পারব ভবিষ্যতে। এত ব্যস্ততার মাঝেও কিন্তু আমি বেড়িয়ে নিচ্ছি। ওটা না হলে চলবে না।

সদ্য মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘ক্রিসক্রস’। বাংলাদেশে নিজের প্রযোজনা সামলে তিনি প্রস্তুত হচ্ছেন ‘বিজয়া’র মুক্তির জন্য।

‘বিজয়া’ ছবি নিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন- যখন কোনো ছবিতে অভিনয় করি, সে সময় নিজের সেরাটা দিই। প্রত্যেকটা চরিত্রের সঙ্গে আমার খুব মায়া-মমতা জড়িয়ে থাকে। কিন্তু কাজটা শেষ হয়ে যাওয়ার পর সেটা নিয়ে আমি আর একদম ভাবি না। কারণ জানি, তখন অনেক কিছু আমার হাতে থাকবে না। তবে আশা করছি, দর্শকের ভালোই লাগবে।

অভিনেত্রীর পাশাপাশি প্রযোজকের খাতায় নিজের নাম লেখার বিষয়ে জয়া বলেন, এখন দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেছে। সব কিছু নিজে হাতে করতে হচ্ছে। আসলে আমাদের দেশে স্ট্রাকচারটা এখানকার চেয়ে অনেকটাই আলাদা। আন্তরিকতাটা থাকলেও এতটা পেশাদার চিন্তাধারা এখনও গড়ে ওঠেনি। আমি কোনোদিন ভাবিনি, স্পনসরদের সঙ্গে আমায় কথাবার্তা বলতে হবে। আমার আবার ব্যবসায়িক বুদ্ধি খুবই খারাপ। একদম মাথা কাজ করে না! আগ্রহই নেই। অনেক সময় ভুলভাল বলে দিই।