ক্যান্টিনের খাবার খেয়ে অসুস্থ্য দিনাজপুর হাবিপ্রবির ৩০ শিক্ষার্থী

দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জিয়াউর রহমান (ডরমেটরি-২) হলে বাটি সাপ্লাই খাবার খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়েছে কমপক্ষে ৩০জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৯জন ছাত্র।

জিয়া হলের অসুস্থ্য শিক্ষার্থী নজরুল, শুভ, মুহিদ, কাওসার, ইয়াসিন আরাফাত ও মেহেদি জানান, ৭ আগস্ট মঙ্গলবার রাতে তরিকুলের ক্যান্টিনের বাটি সাপ্লাই খাবার খেয়ে অন্তত ৩০জন শিক্ষার্থী পরদিন (৮ আগস্ট, বুধবার) সকালে অসুস্থ হয়ে পরে। বুধবার বিকাল পর্যন্ত প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে স্বাস্থ্যের কোন উন্নতি না হলে, বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে ১৯জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৮জন দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে ও মেহেদি নামের একজনকে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। তারা আরো জানান, প্রতিদিন উক্ত ক্যান্টিন থেকে বাটিতে খাবার দিয়ে যাওয়া হলেও সেদিনের মেনুতে ভাতের সাথে ছিল মুরগীর মাংশ।

এদিকে জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শীতল চন্দ্র পাহান জানান, খাদ্যে বিষক্রিয়া জনিত কারনে তাদের ভর্তি করা হয়েছে। তবে আমরা আমাদের পক্ষ থেকে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। তাদের অবস্থা বর্তমানে অনেকটা ভালো। আরো একটু সুস্থ্য হলে বেশ কয়েকজনকে আজ (বৃহস্পতিবার) রিলিজ দেয়া যেতে পারে।

এ ব্যাপারে উক্ত হলের সহকারী হল সুপার ড. আবু সাঈদ জানান, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত আছি। তবে মূলত অস্বাস্থ্যকর বাটির খাবার খাওয়ার কারনে ছাত্ররা অসুস্থ হয়ে পড়েছে। আমি শিক্ষার্থীদের বারবার বলেছি, তারা যেন বাটির খাবার না খেয়ে আমাদের ডাইনিং এর খাবার খায়। বাটির খাবারের চেয়ে আমাদের ডাইনিং এর খাবারের মান অনেক বেশি স্বাস্থ্যসম্মত এবং নিরাপদ। আমি বিষয়টি নিয়ে ক্যান্টিন মালিক তরিকুলের সাথে কথা বলেছি। সকল হল সুপাররা মিলে বসে তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে।

 

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর প্রতিনিধি