আফতাব নগরে ছাত্রলীগ ও শিক্ষার্থীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

সোমবার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর আফতাব নগরে অবস্থান নেন ছাত্রলীগ ও শ্রমিক লীগের কর্মীরা। সেখানে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে টিয়ার শেল ছুড়তে হয়েছে।

আগের দিন বিকেলে ওই একই এলাকায় সড়ক অবরোধ করে অবস্থান নিয়েছিলেন ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের বেশিরভাগের হাতে বাঁশও ছিল গতকাল বিকেলের দিকে।

এরপর সেখানে আজ সকালে ছাত্রলীগ-শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরে অবস্থানের ফলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছিল। এরই মধ্যে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাস থেকে লাঠি হাতে বেরিয়ে এসে শ্রমিকদের ধাওয়া দেয় ছাত্ররা।

এ সময় এক পক্ষ আরেক পক্ষেকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল মারতে থাকে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার শেল ছোড়ে পুলিশ। চার থেকে পাঁচটি কারও ভাঙচুর করা হয় এ সময়।

দুপুর ১২টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলছে।

উল্লেখ্য, ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এমইএস বাস স্ট্যান্ডে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসচাপায় নিহত হন মিম ও করিম নামে দুই শিক্ষার্থী। ওই দুর্ঘটনায় ১০-১৫ জন শিক্ষার্থী আহতও হন । এ ঘটনায় দিয়ার বাবা ওই দিনই ক্যান্টনমেন্ট থানায় একটি মামলা করেন। দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর থেকেই নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। নিরাপত্তাহীনতার অজুহাতে ঢাকা শহরের সব রুটে কয়েকদিন বাস চলাচল বন্ধ রেখেছিলেন পরিবহন মালিকরা। সোমবার সকাল থেকে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

এরই মধ্যে শনিবার বিকেলে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলার ঘটনা ঘটে। ছাত্ররূপী বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীরা এ হামলা চালায় বলে দাবি করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। হামলাকারীদের বাধা দিতে গিয়ে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

জিগাতলায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপরও হামলার ঘটনা ঘটে গত দু’দিন। এসব ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন বেশ ক’জন সাংবাদিক।