মগবাজারে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

রাজধানীর মগবাজার ওয়্যারলেস গেটের পাশে এসপি গোল্ডেন লিমিটেড নামের একটি বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা বাসটিতে আগুন দেয়। শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে বাসটিতে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। রমনা থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মগবাজারে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

মিনিবাসের চাপায় নিহত যুবকের নাম সাইফুল ইসলাম রানা (২৩)। নিহত রানা একটি বেসরকারি ক্লিনিকের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

দুর্ঘটনার পরপরই উত্তেজিত জনতা বাসটিতে (ঢাকা মেট্রো ঝ ১৪-০২১৪) আগুন ধরিয়ে দেয়। রানার পরিবার জানান, দ্রুতগতির বাসটি রানাকে চাপা দেয়। গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক সোয়া ২টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

রানা বরিশাল জেলার বানারিপাড়া তেতলা গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে তিন সবার বড় ছিলেন। খিলগাঁও গোড়ান হাড়ভাঙ্গা মোড় এলাকায় তিনি বসবাস করতেন।

রমনা থানার ওসি বলেন, মোটরসাইকেল আরোহীকে ধাক্কার ঘটনায় গোল্ডেন লাইনের অভিযুক্ত বাসের চালককে আটক করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গোল্ডেন লাইন পরিবহনের ওই বাসটি ছিল যাত্রীশূন্য। বেপরোয়া গতিতে চলা বাসটি প্রথমে একটি রিকশাকে ধাক্কা দেয়। এর পর বাসটি সাইফুল ইসলামের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি ছিটকে রাস্তায় পড়ে যান। তখন তার ওপর দিয়েই বাসটি চলে যায়।

তবে এ ঘটনার পর চালক বাসটি নিয়ে পালাতে গিয়ে আরেকটি সিএনজি অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। তখন ঘটনাস্থলের আশপাশে থাকা জনতা ধাওয়া করে বাসটি ধরে ফেলে। একপর্যায়ে তারা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেন।

পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে আগুন নেভান। তবে ততক্ষণে বাসটি সম্পূর্ণভাবে পুড়ে যায়।

দুর্ঘটনার পর তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহিবুল্লাহ জানান, মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার হয়ে মগবাজার ওয়্যারলেস গেটের ঢাল দিয়ে নেমে ‘এসপি গোল্ডেন লাইন’ পরিবহনের মিনিবাসটি যাচ্ছিল মালিবাগের দিকে।

এদিকে পুলিশ এসে অভিযুক্ত বাসচালককে আটক করে। তবে তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি। পুলিশ বাসটি জব্দ করে থানায় নিয়ে গেছে। বাসচাপায় নিহত সাইফুল ইসলামের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।