ড্রাইভারের লাইসেন্সবিহীন বি.জি.বি. মহাপরিচালকের গাড়ি আটকেছে শিক্ষার্থীরা

রাজধানীর বিমান বন্দর সড়কের কুর্মিটোলা এলাকায় জাবালে নূর বাসের চাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় নৌমন্ত্রীর পদত্যাগ, নিরাপদ সড়ক ও ঘাতক চালকদের দ্রুত বিচার ও ফাঁসির দাবিতে অবরোধ করেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। রাস্তার মধ্যে প্রতিটি গাড়ি আটকে ফিটনেস ও লাইসেন্স চেক করেছে শিক্ষার্থীরা।

’গাড়ি চালাচ্ছেন- লাইসেন্স আছে কি?’। বিভিন্ন যানবাহনের ড্রাইভারদের কাছে এই প্রশ্ন রাজধানী জুড়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের। যাদের লাইসেন্স নেই তাদের গাড়ি আটকে রাখছে তারা। এই অবস্থায় আটকে দেয়া হচ্ছে গাড়ি। বি.জি.বি.এর মহাপরিচালকের ড্রাইভারের লাইসেন্স ও গাড়ির কোন কাগজ না থাকায় আটক করেছে শিক্ষার্থীরা। গাড়িতে “বি.জি.বি.মহাপরিচালক” – এর সাইন বোর্ড নিয়ে পার পেতে চেয়ে ছিলেন বি.জি.বি মহাপরিচালক। কিন্তু বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের হাতে রাজধানীর ব্যস্ততম ধানমন্ডি এলাকায় আটকে গেলো মহাপরিচালকের গাড়ি।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নামা বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-ভার্সিটির শিক্ষার্থীরা “বি.জি.বি.মহাপরিচালক”- এর গাড়ি থামিয়ে গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে ব্যর্থ হন; এমন কি গাড়ির চালক তার ড্রাইভিং লাইসেন্সও দেখাতে পারেন নি।

এদিকে রাস্তা বন্ধ থাকায় কর্মস্থল ও বিভিন্ন গন্তব্যে যেতে ভোগান্তিতে পড়ে বিভিন্ন এলাকার মানুষ। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছাত্রদের বুঝিয়ে সড়ক খুলে দেয়ার জন্য কয়েক দফা চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হন। বিপুল সংখ্যক মানুষকে হেঁটে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।