কুড়িগ্রাম-৩ উপনির্বাচন, জনগনের মুখোমুখি হলেন দুই সংসদ সদস্য প্রার্থী

কুড়িগ্রামের উলিপুরে জনগনের মুখোমুখি হলেন কুড়িগ্রাম-৩ উপনির্বাচনে অংশগ্রহনকারী দুই সংসদ সদস্য প্রার্থী। এসময় তারা ভোটারদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। সেই সাথে তুলে ধরেছেন নিজেদের পরিকল্পনার কথা, যা তারা নিবার্চিত হওয়ার পর বাস্তবায়ন করতে চান।

রোববার (১৫ জুলাই) বিকাল ৫টায় পৌর শহরের বিজয়মঞ্চে সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন উলিপুর উপজেলা শাখার আয়োজনে জনগনের মুখোমুখি অনুষ্ঠানে আওয়ামীলীগের প্রার্থী অধ্যাপক এম এ মতিন বলেন, এখানে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী বিজয়ী হলে এলাকার উন্নয়ন হবে। অতিতে ক্ষমতাসীন দলের এমপি না থাকায় এ এলাকায় তেমন কোন উন্নয়ন হয়নি। তারপরও যে উন্নয়ন প্রকল্পগুলো প্রধানমন্ত্রী ঘোষনা করেছেন সেই প্রকল্প গুলোর কাজ এগিয়ে নেয়া হবে। আমি নির্বাচিত হলে এলাকায় থাকব। এলাকার বেকারদের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করব।

অপরদিকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী অধ্যাপক ডা. আক্কাস আলী সরকার তার বক্তব্যে বলেন, আমি নির্বাচিত হলে উলিপুর ও চিলমারী উপজেলাকে স্মার্ট উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলব। সমাজে নিরাপদ শান্তিপূর্ণ সহবস্থান সৃষ্টি করব। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি করব। এলাকার উন্নয়নের জন্য সরকার কর্তৃক উন্নয়নের পাশাপাশি ও বিদেশিদের সহায়তা নিয়ে এলাকার মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করব।

অনুষ্ঠান চলাকালে দুই প্রার্থী একে অপরের হাতে হাত রেখে অঙ্গীকার করেন আচরন বিধি মেনে তারা নির্বাচন করবেন। এ সময় তারা নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে সুজনের অঙ্গীকার নামা কাগজে স্বাক্ষর করেন।

জনগনের মুখোমুখি অনুষ্ঠানে সুজন উলিপুর শাখার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বার্হী অফিসার মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাচন অফিসার এমদাদুল হক, সুজনের উপজেলা সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী, রংপুর অঞ্চলের সমন্বয়কারী রাজেশ দে। অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন, সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার।

 

আসলাম উদ্দিন আহম্মেদ, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি