জাবি ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকির অভিযোগ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী এক ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসুবকে এই হুমকি দিয়েছেন বলে ভূক্তভোগী ছাত্রীর অভিযোগপত্র সূত্রে জানা গেছে। তারা হলেন- শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হামজা রহমান অন্তর (নাটক ও নাট্যতত্ত্ব-৪১), ইশকাত হারুন আকিব (বাংলা-৪৬), জাহিদ হাসান ইমন (আইআইটি-৪৬) সহ আরো অনেকে।

গতকাল রবিবার বিকালে ভুক্তভোগী ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়ে হুমকিদাতাদের শাস্তি ও অভিযুক্তদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন।

অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেন, ‘আমি কোটা সংস্কার আন্দোলনের পক্ষে সোচ্চার থাকায় একটি চক্র সংঘবদ্ধভাবে আমার চরিত্র হরণের জন্য ধর্ষণের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। তারা আমার পরিবার নিয়েও আপত্তিকর মন্তব্য করে যাচ্ছে। তাই আমি সম্ভ্রম ও জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এমন অবস্থায় অভিযুক্তদের বহিষ্কার ও ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়নের দাবি জানাচ্ছি।’

এদিকে জানা যায়, এর আগেও যৌন হয়রানীর অভিযোগে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হামজা রহমান অন্তরকে ৬ মাসের বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া হল ক্যান্টিনে চাঁদা দাবিসহ ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে এলাকায় নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এসব অভিযোগের বিষয়ে হামজা রহমান অন্তর বলেন, ‘এ সব আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার। আমি কাউকে ধর্ষণের হুমকি দিইনি। এমন কোন প্রমাণ কেউ দেখাতে পারবেনা।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সিকদার জুলকারনাইন বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। আমরা ইতিমধ্যেই তদন্তের কাজ শুরু করেছি।’

রুদ্র আজাদ, জাবি প্রতিনিধি