জাবিতে বিএনপিপন্থী কমকর্তার বিরুদ্ধে অপরাধী ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা অফিসারকে হুমকি দিয়ে তার কার্যালয় থেকে অপরাধীকে ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের এস্টেট শাখার ডেপুটি রেজিস্ট্রার আব্দুর রহমান বাবুলের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন রেজিস্টার ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে তার বিরুদ্ধে একাধিক অপরাধী ছিনতাইয়ের অভিযোগ রয়েছে। অভিযুক্ত আব্দুর রহমান বাবুল বিএনপিপন্থী রাজনীতির সাথে যুক্ত।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌরঙ্গী সংলগ্ন রাস্তায় সিলভার রংয়ের একটি কালো গ্লাসওয়ালা প্রাইভেট কার থেকে আপত্তিকর অবস্থায় এক যুগলকে আটক করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহীন। আটককৃত আকাশ (২৫) ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাস্থ সেনওয়ালিয়ার সুরুজ মিয়ার পুত্র। এ সময় তার সাথে গাড়ির ড্রাইভার ও ভূয়া পরিচয় প্রদানকারী এক পুলিশ কমকর্তাকে আটক করা হয়। এ সময় তারা নিজেদেরকে আব্দুর রহমান বাবুলের আত্মীয় বলে দাবি করে ও প্রধান নিরাপত্তা অফিসারকে চাকুরিচ্যুত করার হুমকি দেয়। কিন্তু অভিযুক্ত আব্দুর রহমান বাবুল মুঠোফোনে তাদেরকে চিনেন বলে জানান।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখায় এনে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদকালে আব্দুর রহমান বাবুল ও প্রতœতত্ত্ব বিভাগের সিনিয়র ফিল্ড অফিসার খোকন মিয়া এসে প্রধান নিরাপত্তা অফিসারের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে এবং দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। এ সময় খোকন মিয়া বলে, ‘এখানে তো চাকরি করতে হবে। অফিসার সমিতির সাবেক সভাপতির সাথে পাঙ্গা নিয়ে টিকতে পারবি না।’ পরে তারা অপরাধী আকাশসহ তার দুই সহযোগীকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আব্দুর রহমান বাবুল বলেন, ‘সেখানে ছিনিয়ে নেয়ার কোন ঘটনা ঘটেনি। আটককৃত আকাশ আমার প্রতিবেশী। মেয়ের পরিবারের কাছে যখন মেয়েকে হস্তান্তর করা হয় তখন আমরাও তাদেরকে নিয়ে চলে আসি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহিন বলেন, ‘এভাবে অপরাধীদের ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনাটা ন্যাক্কারজনক। আর আমি তাদেরকে হুমকিতে কোন ভয় পাইনি।’

রুদ্র আজাদ, জাবি প্রতিনিধি