মাদক ব্যবসায় সহযোগিতা না করায় প্রতিবেশিদের বাড়ি ঘরে হামলা

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে এক মাদক ব্যবসায়ির মাদকদ্রব্য প্রতিবেশিদের বাড়িতে মাদকদ্রব্য না রাখতে দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে রাজু আহম্মেদ নামের এক হ্যান্ডলিং শ্রমিকসহ ৫ জনকে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাতœক ভাবে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত সবাইকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলার কাশিপুর মাঠ পাড়ার মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা হ্যান্ডলিং শ্রমিক রাজুসহ তার পরিবারের সদস্যদের উপর এ হামলার ঘটনা ঘটায়। এতে এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানদের ৭ টি বাড়িঘর ভাংচুর করে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকেলে উপজেলার কাশিপুর মাঠপাড়া গ্রামে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পৌর কাউন্সিলর রেজাউল করিম রেজা।

আহত রাজু বলেন, মিজানুর রহমান এলাকার মাদক ব্যবসায়ী। রাজু, তার ভাই ও মা দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় ফেন্সিডিল, ইয়াবা ও গাঁজার ব্যবসা করে আসছে। তারা বিভিন্ন সময় টাকার প্রলোভন দেখিয়ে আমাদের বাড়িতে মাদকদ্রব্য রাখতে চায়। কিন্তু আমরা বাড়িতে এসব মাদক রাখতে না দেওয়ায় তারা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের সাথে গোলজোগ করতে থাকে। গত এক বছর ধরে তারা আমাদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করছে। সম্প্রতি মাদক বিরোধী অভিযান শুরু হলে তখনও তারা আমাদের বাড়িতে এসব মাদক দ্রব্য রাখার জন্য চাপ দেয়। কিন্তু আমরা মাদক দ্রব্য রাখেনি।

রাজু আরো জানায়, শুক্রবার পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তারা আমাদের সাথে গোলযোগ শুরু করে। সে সময় মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানসহ তার আত্মীয়-স্বজনরা আমার স্ত্রী মনোয়ার বেগম, শ্বশুর আব্দুল মালেক, শাশুড়ী আম্বিয়া বেগম, শ্যালিকা তহমিনা ও আমাকে লাঠি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং পিটিয়ে আহত করে। আমরা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর হাসপাতালে এসেও পুনরায় আমাদের কে মারধর উদ্যত হয় এবং প্রান নাশের হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনার জেরে এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানসহ তার আতœীয়-স্বজনদের ৭টি বাড়ি ঘর ভাংচুর করে।

তিনি আরো জানান, মিজানুর রহমানদের সবাই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত।

কালীগঞ্জ পৌরসভার ৮নং কাউন্সিলর রেজাউল করিম রেজা জানান, মিজানুর একজন মাদক ব্যবসায়ী। এখনো সে ও তার মা এলাকায় গাঁজা বিক্রি করে আসছে। এছাড়া পাশের বাড়িতে তারা মাদক দ্রব্য রাখার জন্য চাপ প্রয়োগ করে।

কিন্তু তারা মাদক দ্রব্য রাাখতে চায়নি। এসব বিষয় নিয়ে পাশের বাড়ির লোকজনের সাথে মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানদের গোলযোগ চলে আসছিল। মিজানুর রহমানসহ তাদের আত্মীয়-স্বজনরা পাশের বাড়ি শ্রমিক রাজুসহ অন্যান্যদের মারপিট করে আহত করে। এতে এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানদের বাড়ি-ঘর ভাংচুর করে। ঘটনার পর মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ও আত্মীয়-স্বজনরা পালিয়ে গেছে। অপরদিকে অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানসহ পরিবারের সবাই পালিয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান খান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে যারা আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে তারা অভিযোগ দিলে অবশ্যই মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জাহিদুর রহমান তারেক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি