বান্দরবান সরকারি কলেজের জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ

বান্দরবান সরকারী কলেজের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে ঘর নির্মান করছেন প্রভাবশালী এক উপজাতীয় ব্যাক্তি। শুক্রবার দুপুরে বান্দরবান সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ বান্দরবান সদর থানায় এ অভিযোগ করেন।

জানা যায়, গত কয়েক দিন ধরে কলেজ কর্তৃপক্ষ বর্ষার মৌসুমে আমের চারা রোপন করার জন্য কলেজের সাড়ে ৯ একর পতিত জায়গায় জঙ্গল পরিষ্কার করে সেখানে অবৈধভাবে পার্শ্ববর্তী মংক্যশৈ নেবী জায়গাটি তার দাবী করে। এর প্রেক্ষিতে কলেজের প্রিন্সিপাল তাকে কাগজপত্র নিয়ে শনিবার বৈঠকে বসার কথা বলেন। কিন্তু সে বৈঠকে না বসেই জায়গাটি তার দাবী করে জোর পূর্বক লোকজন দিয়ে রাতারাতি ঘর তৈরী করে।

কলেজ কর্তৃপক্ষ তাকে নিষেধ করার পরও সে কর্ণপাত না করে নির্মান কাজ চালিয়ে যায়। শুক্রবার দুপুরে কলেজ র্কতৃপক্ষ থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি তবে নির্মানাধীন ঘর ও তৈরীর যাবতীয় জিনিসপত্র পরিলক্ষিত হয় বলে জানান সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর জিয়া। পরে উভয়পক্ষের সাথে কথা বলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

বান্দরবান কলেজের সহকারী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমাদের কলেজের সাড়ে ৯ একর জায়গা রয়েছে। কলেজের পতিত জায়গায় আমরা আমের চারা রোপন করতে গেলে পার্শ্ববর্তী অমুক তার জায়গা বলে দাবী করে। শুক্রবার সকালে এ বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষের সাথে কথা হবে বললেও তিনি জোর পূর্বক অবৈধভাবে রাতারাতি ঘর তৈরী করে। যদি আইনীভাবে উক্ত জায়গাটি তিনি প্রাপ্য হন তাহলে আমরা তাকে জায়গা ছেড়ে দেব। তবে নিষ্পত্তির আগে সরকারী কলেজের জায়গায় অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ উচ্ছেদের দাবী জানান তিনি।

এদিকে অভিযুক্ত মংক্যশৈ বলেন, কলেজের প্রিন্সিপালের সাথে আমার কথা হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা উভয়পক্ষ কাগজপত্র নিয়ে শনিবার বৈঠকে বসবো।

সোহেল কান্তি নাথ, বান্দরবান প্রতিনিধি