ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের ৬৭ জন সদস্যের কমিটিতে ১২ জনই জামায়াত-বিএনপি

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ হাফেজ মো. কাউছার নামের এক জামায়াত সমর্থককে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন একই উপজেলার আওয়ামীলীগ সভাপতি আজিজুল হক মাস্টার।

বর্তমানে চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের ৬৭ জন সদস্যের কমিটিতে ১২ জনই জামায়াত-বিএনপির সমর্থক রয়েছেন দাবি করে এসময় তিনি বলেন, এদের জন্য দলের বদনাম হচ্ছে।

আজ শনিবার সকাল ১১টায় ফরিদপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন। এছাড়াও এসময় চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান আজিজুল হক মাস্টার। এতে ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেনসহ চরভদ্রাসন ও সদরপুর উপজেলার অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, উপজেলা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর কাউছার উপজেলায় বিভিন্ন দখল, অনিয়ম, দুর্নীতি করে যাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে এসব ঘটনার প্রতিকার চেয়েও কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আজিজুল হক মাস্টার বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ফরিদপুর ৪ আসনে কাজী জাফরউল্লাহ মনোনয়ন পেলে তিনি আবারো পরাজিত হবেন। কারণ তৃণমূল পর্যায়ে তাঁকে কেউই চায় না। এ আসনে জিততে হলে নতুন মুখ চাই।

 

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি