নেশার মরণ ফাঁদে ফরিদপুর, ধ্বংসের মুখে যুব সমাজ

বাংলাদেশের মানচিত্রে ফরিদপুর একটি ঐতিহাসিক জেলা। যেখানে বাংলাদেশ সরকারের অনেক বড় বড় কর্মকর্তা রয়েছেন, রয়েছেন দেশবরেণ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বসবাস। অথচ সেখানে আজ নেশার মরণ ফাঁদে পড়ে ফরিদপুরের যুব সমাজ আজ ধ্বংসের দারপ্রান্তে পৌঁছেছে। তরুণরা নেশার তলে তলিয়ে যাচ্ছে, বিশেষ করে ইয়াবা আসক্ত হয়ে পড়ছে।

নেশাগ্রস্থদের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা দিনে দিনে বাড়ছে। তারা স্বাভাবিক ও সুখ স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবনকে বিসর্জন দিচ্ছে। উঠতি বয়সের যুবকরা এই নেশায় বেশি আসক্ত হয়ে পড়ছে।

স্থানীয়রা জানায়, মাঝে মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কিছু মাদক বিক্রেতা ও সেবীদের গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠালেও কয়েক দিন যেতে না যেতে আইনের ফাঁক ফোঁকর দিয়ে অনায়াসে বেরিয়ে আসছে, ফলে পুনরায় আবার সেই ব্যবসা শুরু করে তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা প্রশাসনের এক কর্মকর্তা জানায়, মাদক সরবরাহকারীদের হাত অনেক লম্বা। স্কুল কলেজের উঠতি বয়সের ছেলেরা ইয়াবা আসক্ত হয়ে পড়ছে, এদের মধ্যে থেকে অনেকে ব্যবসা শুরু করেছে, হাত বদলের মাধ্যমে এর বিস্তার ঘটছে বেশি।

স্থানীয়দের দাবী, যারা এই নেশাদ্রব্য সরবরাহ করেন, তাদের চিহ্নিত করে এদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যাবস্থা করতে হবে। তাহলে কিছুটা পরিত্রাণ পাওয়া যেতে পারে।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি